Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

নাট তুলতে নেমে প্রাণ হারালেন ৩

নিজস্ব সংবাদদাতা
শিলিগুড়ি ১৫ জুন ২০১৮ ০১:৩১
শোক: চোখের সামনে কুয়োয় মৃত্যু হয়েছে স্বামী ও শ্বশুরের। চিৎকার করেছেন, ছোটাছুটি করেছেন, কিন্তু বাঁচাতে পারেননি কাউকেই। সব শেষ হয়ে যাওয়ার পরে ভেঙে পড়েছেন বিকির স্ত্রী মাহি। ছবি: স্বরূপ সরকার

শোক: চোখের সামনে কুয়োয় মৃত্যু হয়েছে স্বামী ও শ্বশুরের। চিৎকার করেছেন, ছোটাছুটি করেছেন, কিন্তু বাঁচাতে পারেননি কাউকেই। সব শেষ হয়ে যাওয়ার পরে ভেঙে পড়েছেন বিকির স্ত্রী মাহি। ছবি: স্বরূপ সরকার

কুয়োর সঙ্গে লাগানো ছিল জল তোলার পাম্প। পাম্পের যন্ত্রাংশ কুয়োয় পড়ে গেলে সেটা তুলতে গিয়ে কুয়োতেই মৃত্যু হল বাবা ও তাঁর ছেলের। তাঁদের বাঁচাতে গিয়ে কুয়োয় নেমে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে, মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ি শহরের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মহারাজ কলোনি।

ঘটনার সূত্রপাত একটি পাম্পের ছোট যন্ত্রাংশকে কেন্দ্র করে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সকালে জল তোলার পাম্প ঠিক করতে গিয়ে পাম্পের একটি যন্ত্রাংশ বাড়ির কুয়োয় পড়ে যায়। সেটিকে তুলতে এবং অপরিষ্কার কুয়ো পরিষ্কার করতে বাড়ির ছেলে বিকি মাহাতো (২২) কুয়োতে নামেন। নামার পরে সে আর সেখান থেকে উঠতে পারছে না দেখে, তাঁর বাবা নিরঞ্জন মাহাতো (৫৫) ছেলেকে বাঁচাতে কুয়োয় নামেন। কিন্তু তিনিও কুয়োয় নেমে আর উঠতে পারেননি।

বিকির স্ত্রী মাহি বাড়ির কারও কোনও সাড়াশব্দ না পেয়ে খুঁজতে খুঁজতে কুয়োর পাশে এসে দেখেন স্বামী-শ্বশুর দু’জনেই কুয়োর মধ্যে, উঠতে চেষ্টা করেও, উঠতে পাচ্ছেন না। মাহি তখনই চিৎকার শুরু করেন। তাঁর চিৎকার শুনে পাশের বাড়ি থেকে ছুটে আসেন ভোগলাল সাহা (৩৫)। তিনিও ওই দু’জনকে বাঁচাতে কুয়োয় নামেন। তবে নামার সঙ্গে সঙ্গে তিনিও ছটপট করতে থাকেন। ইতিমধ্যে বাড়ির অন্যান্যরাও চলে আসেন। চিৎকার, কান্নায় জড় হন পড়শিরা। খবর দেওয়া হয় দমকল কেন্দ্রে। দমকল কর্মীরা এসে তিনজনকে উদ্ধার করেন। তাঁদেরকে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।

Advertisement



প্রাণঘাতী: এই সেই মারণ কুয়ো। নিজস্ব চিত্র

তদন্তে খালপাড়া পুলিশ ফাড়ির পুলিশ এদিন ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বাড়ির এক কোণে দু’ফুট ব্যাসার্দ্ধের একটি কুয়োয় জলের পাম্পের পাইপ লাগানো ছিল। কুয়ো র পাঁচিলে পাম্পটি বসানো ছিল। পাম্পে লাইন সংযোগও ছিল। সেই পাম্পের একটি যন্ত্রাংশ কুয়োয় পড়ে যাওয়ার পর এই ঘটনা ঘটেছে। যন্ত্রাংশটিকে ধরতে বিকি হয়তো ঝুঁকেছিল। তার ফলেও এমন দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে পুলিশ মনে করছে।। যদিও এদিন অনেকে কুয়ো পরিষ্কারের জন্য নামতে গিয়ে এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানান স্থানীয়রা। দমকল সূত্রে খবর, কুয়োয় প্রচুর গ্যাস ছিল। সে জন্য নেমে আর কেউ উঠতে পারেননি।

কাউন্সিলর পরিমল মিত্র জানান, ‘‘কুয়োয় প্রচুর গ্যাস জমেছিল। সেই গ্যাসে পড়ে শ্বাস বন্ধ হয়েই মৃত্যু হয়েছে বলে তাঁর ধারণা।’’ শিলগুড়ি ডেপুটি পুলিশ কমিশনার গৌরব লাল (পূর্ব) জানান, ‘‘ময়নাতদন্তে সঠিক তথ্য জানা যাবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement