Advertisement
১৪ জুন ২০২৪

পণের দাবিতে ‘খুন’

ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে এ দিন বিকেলে ওই গৃহবধূর দেহ নিয়ে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার সামনে বিক্ষোভ দেখান বামনপাড়া এলাকার বেশ কিছু বাসিন্দা৷ তাতে সামিল হন তৃণমূলের মহিলা নেত্রী ও কর্মীরাও৷

—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
জলপাইগুড়ি শেষ আপডেট: ৩১ জুলাই ২০১৭ ০২:১৫
Share: Save:

বিয়ের সময় এক লক্ষ টাকা যৌতুক হিসাবে পেয়েছিলেন শ্বশুরবাড়ির লোকেরা৷ কিন্তু আরও একলক্ষ টাকার জন্য তার কিছু দিন পর থেকেই বধূর উপরে অত্যাচার চালানো হত বলে অভিযোগ৷ বিয়ের ঠিক দেড় বছরের মাথায় অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ওই বধূরই মৃত্যুতে চাঞ্চল্য ছড়াল জলপাইগুড়ি শহরের বামনপাড়া এলাকায়৷ বধূর বাড়ির লোকেদের অভিযোগ, শ্বশুরবাড়ির লোকেরা আগুন ও অ্যাসিড দিয়ে পুড়িয়ে মেরেছে তাকে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্তরা৷

ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে এ দিন বিকেলে ওই গৃহবধূর দেহ নিয়ে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার সামনে বিক্ষোভ দেখান বামনপাড়া এলাকার বেশ কিছু বাসিন্দা৷ তাতে সামিল হন তৃণমূলের মহিলা নেত্রী ও কর্মীরাও৷ পুলিশ বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষোভ ওঠে৷

মৃতার নাম শিউলি রায় মজুমদার (২৬)৷ বাড়ি ধূপগুড়ির কুর্শামারিতে৷ ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে জলপাইগুড়ি শহরের বামনপাড়া এলাকার বাসিন্দা দেবব্রত মজুমদারের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়৷ নিজেকে মানবাধিকার কর্মী বলে পরিচয় দেওয়া দেবব্রত পেশায় ছিলেন দুধের ব্যবসায়ী৷ দেবব্রতর বাবা ও ভাইও ব্যবসায়ী৷

শিউলির বাবা পেশায় আমিন পরিমল রায়ের অভিযোগ, বিয়ের সময়ই দু’লক্ষ টাকা পণ দাবি করা হয়৷ তাঁরা এক লক্ষ টাকা দিতে সমর্থ হন৷ বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই বাকি এক লক্ষের জন্য শিউলির উপরে শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করা হত। কয়েকবার বাবার বাড়িতে চলে যান শিউলি৷ মা শোভাদেবীর অভিযোগ, মেয়ের শ্বশুর ও দেওর প্রতিদিনই মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফিরতেন৷ মেয়েকে গালিগালাজ করতেন৷ মেয়ের স্বামী কোন প্রতিবাদ করতেন না৷

এ দিন সকাল পৌনে সাতটা নাগাদ দেবব্রতর মা শিউলির বাবাকে ফোন করে জানান তাঁর মেয়ে গায়ে আগুন দিয়েছে৷ কিন্তু তাঁরা আসার খানিক ক্ষণের মধ্যেই শিউলির মৃত্যু হয়৷ দুপুরে জলপাইগুড়ি মহিলা থানায় মেয়ের স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি সহ পাঁচ জনের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন পরিমলবাবু৷ পরিমলবাবুর অভিযোগ, ‘‘আমাদের সন্দেহ মেয়েকে আগুন ও অ্যাসিড দিয়ে পুড়িয়ে মারা হয়েছে৷’’ তদন্ত শুরু হয়েছে৷

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE