×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বেআইনি সুদের কারবারেই কি খুন রায়দিঘির বৃদ্ধ?

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়দিঘি০২ ডিসেম্বর ২০২০ ১৯:০৮
বুধবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন, রাস্তার ধারে পড়ে রয়েছে কাছেদের রক্তাক্ত দেহ। —নিজস্ব চিত্র।

বুধবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন, রাস্তার ধারে পড়ে রয়েছে কাছেদের রক্তাক্ত দেহ। —নিজস্ব চিত্র।

বেআইনি সুদের কারবারই কেড়ে নিল এক বৃদ্ধের জীবন। সুদের টাকা নিয়ে বিবাদের জেরেই রাতের অন্ধকারে ওই বৃদ্ধকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। মঙ্গলবার গভীর রাতে দক্ষিণ ২৪ পরগনার রায়দিঘি এলাকায় ওই ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

বুধবার সকালে রায়দিঘির গিলারছাটের বৈরাগীরচক এলাকায় তাঁর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, নিহত কাছেদ বৈদ্য (৬৫) স্থানীয় বৈদ্য পাড়ার বাসিন্দা।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় অবৈধ ভাবে সুদের কারবার চালাচ্ছিলেন কাছেদ। তাঁদের দাবি, টাকাপয়সার লেনদেন নিয়ে এলাকার বহু মানুষের সঙ্গে তাঁর বিবাদ লেগেই থাকত। পুলিশ-প্রশাসনের নিষেধ অগ্রাহ্য করেই তিনি গোপনে সুদের কারবার চালাতেন বলেও অভিযোগ। এই কারবার চলতে থাকায় গ্রামের মধ্যে রাতে অপরিচিত যুবকদের আনাগোনা দিনের পর দিন বাড়ছিল বলেও বাসিন্দাদের দাবি।

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘অভিষেক রাক্ষস, মহিষাসুর’, ফের নাম করে নিশানা বিজেপি সাংসদ সৌমিত্রের

আরও পড়ুন: ‘কিছুই মেটেনি’! সৌগতকে কড়া বার্তা শুভেন্দুর, উগরে দিলেন ক্ষোভ

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পাড়ার দোকানে চা খাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন কাছেদ। কিন্তু রাত হয়ে গেলেও বাড়ি না ফেরায় গোটা গ্রামেই খোঁজখবর শুরু করেন তাঁর মেয়ে মোমেনা বৈদ‍্য। তবে গ্রামের কোথাও তাঁর খোঁজ মেলেনি।

বুধবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন, রাস্তার ধারে পড়ে রয়েছে কাছেদের রক্তাক্ত দেহ। সঙ্গে সঙ্গে রায়দিঘি থানায় খবর দেওয়া হয়। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান, মাথায় ভারী কিছু দিয়ে কাছেদকে আঘাত করা হয়েছে। কাছেদের পরিবারের দাবি, টাকা লেনদেন নিয়ে বিবাদের জেরেই কাছেদকে খুন করা হয়েছে।

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, বুধবার ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য দেহটি পাঠানো হয়েছে। ঠিক কী কারণে খুন করা হল কাছেদকে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Advertisement