Advertisement
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Recruitment Case

দ্রুত শুনানি শেষ করতে চান বিচারপতি সিংহ

চাকরিহারা শিক্ষকদের আইনজীবী সপ্তাংশু বসু এ দিন কোর্টে দাবি করেন যে তাঁর মক্কেলদের নিয়োগ অবৈধ তা প্রমাণ হয়নি। তাই চাকরি থেকে বরখাস্ত করা যাবে না।

Calcutta HC Justice Amrita Sinha

কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিংহ। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০২৩ ০৫:৫৭
Share: Save:

প্রাথমিক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ‘সময় নষ্ট করছে’ বলে রীতিমতো অসন্তোষ প্রকাশ করলেন কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিংহ। বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানিতে বিচারপতি বলেন যে পর্ষদের সময় নষ্টের ফল ভুগতে হচ্ছে বঞ্চিত চাকরিপ্রার্থী এবং চাকরিহারা শিক্ষকদের। তার পরেই দ্রুত এই মামলার শুনানি শেষ করার কথা বলেন তিনি। প্রয়োজনে শনিবারও (শনি এবং রবিবার হাই কোর্ট ছুটি থাকে) শুনানি করতে পারেন বলে বিচারপতি জানিয়েছেন। প্রাথমিকের তালিকা নিয়ে এ দিন পর্ষদের হলফনামাও তলব করেছেন তিনি। ১২ ডিসেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানি।

এ দিন মামলার শুনানিতে পর্ষদের কৌঁসুলির উদ্দেশে বিচারপতি প্রশ্ন করেন যে পর্ষদের যে হলফনামা জমা দেওয়ার কথা ছিল তা কোথায়? সেই হলফনামা জমা দেওয়ার জন্য সময় চান পর্ষদের কৌঁসুলি লক্ষ্মী গুপ্ত। তখনই বিচারপতি বলেন, ‘‘অযথা সময় নষ্ট করা বন্ধ করুন। প্রয়োজনে শনিবার আমি এই মামলা শুনতে পারি। শনিবার আমি চেম্বার কিংবা আদালতে বসে মামলার শুনানি করতে পারি ।’’

চাকরিহারা শিক্ষকদের আইনজীবী সপ্তাংশু বসু এ দিন কোর্টে দাবি করেন যে তাঁর মক্কেলদের নিয়োগ অবৈধ তা প্রমাণ হয়নি। তাই চাকরি থেকে বরখাস্ত করা যাবে না। বঞ্চিত চাকরিপ্রার্থী রমেশ মালিকের আইনজীবী সুদীপ্ত দাশগুপ্ত অবশ্য পাল্টা দাবি করেন যে ওই শিক্ষকদের নিয়োগের প্রয়োজনীয় যোগ্যতা নেই তা পর্ষদ নিজেই স্বীকার করেছে। আরেক মামলাকারী সৌমেন নন্দীর আইনজীবী ফিরদৌস শামিম জানান, পর্ষদ শূন্য পদের বেশি নিয়োগ করেছে। টেট পাশ করেননি এমন ৯৪ জনকে নিয়োগ করা হয়েছে। জেনেবুঝেই ওই অবৈধ নিয়োগ করা হয়েছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE