Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

যুদ্ধ বিরোধী অবস্থানের জেরেই ট্রোলড নিহত বাঙালি জওয়ানের স্ত্রী

মঙ্গলবার পাকিস্তানে ঢুকে ভারতীয় বায়ুসেনা জঙ্গিঘাঁটি গুঁড়িয়ে এলেও অবস্থান বদলাননি তিনি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৯:১১
মিতা সাঁতরা।—ফাইল চিত্র।

মিতা সাঁতরা।—ফাইল চিত্র।

পুলওয়ামায় হামলার পর অসহিষ্ণুতার আবহ দেশজুড়ে। তা থেকে নিষ্কৃতি পেলেন না নিহত জওয়ানের স্ত্রীও। যুদ্ধের বিরোধিতা করায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল করা হল তাঁকে।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় প্রাণ হারান হাওড়ার বাউড়িয়ার চককাশী রাজবংশীপাড়ার বাসিন্দা বাবলু সাঁতরা। স্বামীর মৃত্যুতে ভেঙে পড়লেও, শুরু থেকেই যুদ্ধের বিরোধিতা করে আসছেন তাঁর স্ত্রী মিতা।

এমনকি মঙ্গলবার পাকিস্তানে ঢুকে ভারতীয় বায়ুসেনা জঙ্গিঘাঁটি গুঁড়িয়ে এলেও অবস্থান বদলাননি তিনি। প্রত্যাঘাত কখনও মলম হতে পারে না বলে মন্তব্য করেন। সেই নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই ফেসবুকে ট্রোল করা হচ্ছে তাঁকে। কেউ কেউ তাঁর চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন। তো কেউ আবার দেশদ্রোহী বলে আক্রমণ করেছেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: প্রত্যাঘাত মলম নয়, মিতার প্রশ্ন সুরক্ষা নিয়েই​

আরও পড়ুন: কালই মুক্তি অভিনন্দনের, ঘোষণা করে ইমরান বললেন, শান্তির বার্তা দিতেই এই পদক্ষেপ​

তবে স্বামীর মৃত্যুর পর এখনও দুসপ্তাহও কাটেনি। এই মুহূর্তে এ সব নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ মিতা। তাঁর কথায়, ‘‘দীর্ঘদিন হয়ে গেল ফেসবুক খুলি না। তাই কে কী বলল চোখে পড়ে না। তা ছাড়া লোকে কী বলছে, এই মুহূর্তে তা জানার মতো মানসিক অবস্থায় নেই আমি। যদি কেউ সমালোচনা করে থাকেন, সেটা তাঁর রুচির পরিচয়। যুদ্ধ কখনও সমাধান হতে পারে না। এতকিছুর পরও সেটাই বিশ্বাস করি।’’

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপি কনভয়ে হামলা চালায় পাকিস্তানি জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ। তাতে প্রাণ হারান ৪০ জন জওয়ান। তার পর থেকে প্রতিশোধের আগুনে ফুটছিল দেশ। তবে স্বামীর কফিনবন্দী দেহ আগলেও যুদ্ধের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন মিতা।

(বাংলার রাজনীতি, বাংলার শিক্ষা, বাংলার অর্থনীতি, বাংলার সংস্কৃতি, বাংলার স্বাস্থ্য, বাংলার আবহাওয়া -পশ্চিমবঙ্গের সব টাটকা খবর আমাদের রাজ্য বিভাগে।)

আরও পড়ুন

Advertisement