Advertisement
২০ জুলাই ২০২৪

বধূর চুল কেটে দিয়ে নিগ্রহের অভিযোগ

মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে বোলপুর থানার হাটতলা এলাকায়। অভিযোগ, প্রেমিকের বাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে প্রথমে মারধর করা হয়। পরে তাঁর চুল কেটে দেওয়া হয়। মহিলার বছর বারোর ছেলে বোলপুর থানা থেকে পুলিশ নিয়ে গিয়ে মাকে উদ্ধার করে।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বোলপুর শেষ আপডেট: ০২ অক্টোবর ২০১৭ ০১:৪৯
Share: Save:

বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে এক আদিবাসী মহিলার চুল কেটে মাথা ন্যাড়া করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল প্রেমিকের পরিবারের লোকজনের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে বোলপুর থানার হাটতলা এলাকায়। অভিযোগ, প্রেমিকের বাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে প্রথমে মারধর করা হয়। পরে তাঁর চুল কেটে দেওয়া হয়। মহিলার বছর বারোর ছেলে বোলপুর থানা থেকে পুলিশ নিয়ে গিয়ে মাকে উদ্ধার করে।

যদিও, এই ঘটনায় রবিবার পর্যন্ত পুলিশের কাছে কোনও লিখিত অভিযোগ হয়নি।

নির্যাতিতা, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে দাবি, বোলপুর শহরে নিজের ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ভাড়া করে থাকতেন নির্যাতিতা। এক বছর ধরে এই মহিলার সঙ্গে কর্মসূত্রে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল হাটতলার বাসিন্দা পেশায় এক লটারি টিকিট বিক্রেতা অশোক সিংহের।

সম্পর্কের কথা জানাজানি হতেই অশোকের পরিবারের লোকজন বেশ কয়েকবার ওই মহিলাকে বাড়িতে গিয়ে তাঁকে মারধর করে এসেছে বলে অভিযোগ।

এ দিন স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, ‘‘এর আগে এ নিয়ে গোলমাল হয়েছিল। সে সময় সাময়িক ভাবে থামানো গেলেও এ দিন ঘটনা বড় আকার নেয়।’’

এমনকী, তাঁর বাড়িতেও ভাঙচুর করেছিল। মঙ্গলবার ফের তাঁদের দু’জনকে এলাকার একটি বাড়িতে এক সঙ্গে দেখতে পায় অশোকের পরিবারের লোকজন। এই নিয়ে শুরু হয় বচসা। পরে ওই মহিলাকে বোলপুর থানায় নিয়ে যাওয়ার নাম করে হাটতলায় নিজেদের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে বেধরক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগ, পরে তাঁর মাথার চুলও কেটে দেওয়া হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নির্যাতিতার দাবি, ‘‘প্রায় এক বছর ধরে অশোকের সঙ্গে আমার সম্পর্ক আছে। ওর বাড়ির লোক অনেক বার মেরে গিয়েছে। এ বার বাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে চুল কেটে দিয়েছে আমার। ওদের শাস্তি চাই।’’

অশোক বলেন, ‘‘আমার সঙ্গে ওই মহিলার সম্পর্ক ছিল। আমি ওর কোনও ক্ষতি করিনি। এ ব্যাপারে যা বলার পরিবারের লোকে বলবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE