Advertisement
১৩ জুন ২০২৪
Rampurhat

Rampurhat Clash: ‘আমি নির্দোষ, তখন হাসপাতালে ছিলাম’, জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলবেন আনারুল

মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন, রামপুরহাটের ব্লক তৃণমূল সভাপতি আনারুল হোসেনকে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করতে হবে, নয় তো গ্রেফতার করা হবে তাঁকে।

আনারুলকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন মমতা।

আনারুলকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন মমতা। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
রামপুরহাট শেষ আপডেট: ২৪ মার্চ ২০২২ ১৪:০১
Share: Save:

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছেন, রামপুরহাটের ব্লক তৃণমূল সভাপতি আনারুল হোসেনকে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করতে হবে, নয় তো গ্রেফতার করা হবে তাঁকে। মুখ্যমন্ত্রীর এমন নির্দেশের কথা শুনে আনারুল সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তিনি নির্দোষ। জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ করবেন তিনি। ঘটনার দিন রাতে তিনি হাসপাতালে ছিলেন বলেও তিনি জানিয়েছেন।

ঘটনার পর পরই নিহতদের পরিবারের তরফ থেকে অভিযোগ করা হয় যে, এই ঘটনা ঘটিয়েছেন আনারুলই। কিন্তু দায় অস্বীকার করেন আনারুল। তিনি জানিয়েছিলেন যে, ঘটনার সময় নিহত পঞ্চায়েত উপপ্রধান ভাদু শেখের মৃতদেহের সঙ্গে তিনি হাসপাতালেই ছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘‘উপপ্রধানের মারা যাওয়ার খবর পেয়ে আমি হাসপাতালে গিয়েছিলাম। হাসপাতাল থেকে থানায় এসেছি। সিসিটিভিতে তার প্রমাণ আছে। কেউ দেখাক আমি ওই সময় গ্রামে গিয়েছিলাম।’’

অন্যদিকে নিহতদের পরিবারের দাবি ছিল, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নেতৃত্ব দিয়েছেন আনারুল। এমনকি পুলিশকে আটকে দেওয়ার অভিযোগও ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে।

এর পর বৃহস্পতিবার নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে এসে বগটুই পৌঁছে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, দোষীদের কড়া শাস্তি দিতে হবে। পুলিশকেও দ্রুত গ্রেফতার করতে হবে। তিনি বলেন, ‘‘তদন্ত তদন্তের পথে চলবে। আমি এর মধ্যে কোনও ভাবে হস্তক্ষেপ করব না। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। যে পুলিশ অফিসার এর মধ্যে জড়িত, তাঁদেরও ছাড়া হবে না।’’ পাশাপাশি সরাসরি আনারুলের নাম উল্লেখ করে তাঁকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন মমতা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE