Advertisement
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আইসিকে অপসারণের দাবি

ফের রামপুরহাট থানার আইসির অপসারণের দাবিতে সরব হল বামফ্রন্ট। সোমবার সিপিএমের রামপুরহাট ১ ও ২ জোনাল কমিটির উদ্যোগে প্রথমে রামপুরহাট শহরে মিছিল হয়। পরে গণ-অবস্থান হয় থানায়। এরপর তিন দফা দাবি নিয়ে একটি স্মারকলিপি জমা দেয় রামপুরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক জোবি থমাসকে। ঘটনা হল, পুরসভা নির্বাচনের সময় থেকে এই নিয়ে তিনবার অপসারণের দাবি তুলল তারা।

নিজস্ব সমবাদদাতা
রামপুরহাট শেষ আপডেট: ২৩ জুন ২০১৫ ০০:২৩
Share: Save:

ফের রামপুরহাট থানার আইসির অপসারণের দাবিতে সরব হল বামফ্রন্ট। সোমবার সিপিএমের রামপুরহাট ১ ও ২ জোনাল কমিটির উদ্যোগে প্রথমে রামপুরহাট শহরে মিছিল হয়। পরে গণ-অবস্থান হয় থানায়। এরপর তিন দফা দাবি নিয়ে একটি স্মারকলিপি জমা দেয় রামপুরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক জোবি থমাসকে।

ঘটনা হল, পুরসভা নির্বাচনের সময় থেকে এই নিয়ে তিনবার অপসারণের দাবি তুলল তারা। আর অন্য রাজনৈতিক দল মিলে এই দাবি কমপক্ষে ছ’বার তুলল। জেলা পুলিশের তরফ থেকে অবশ্য এ নিয়ে কোনও হেলদোল নেই। এখনও বহাল তবিয়তে কর্তব্যে বহাল থেকে গিয়েছেন রামপুরহাট থানার অভিযুক্ত আইসি আবু সেলিম। এ দিন রামপুরহাটে একটি অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশ সুপার মুকেশ কুমার এসেছিলেন। সেখানে তিনি বলেন, ‘‘তদন্ত চলছে। তদন্তের শেষে জানা যাবে।’’ সিপিএমের জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য সঞ্জীব বর্মণ বলেন, ‘‘রামপুরহাট থানার আইসি যেদিন থেকে এখানে জয়েন করেছেন, সে দিন থেকেই উনি শাসকদলের হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এমনকী, থানায় বসে তৃণমূলের ছাড়া কোনও কাজ হবে না। এমন কথাও বলেন।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘গত ১২ জুন পুরসভার ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের সিপিএম কাউন্সিলর সঞ্জীব মল্লিক এলাকার একটি মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানাতে গেলে, অভিযোগ তাঁকে বের করে দেওয়া হয়।’’ এমন অভিযোগ নতুন নয়। বৈষম্যমূলক আচরণের প্রতিবাদ করলেও কোনও ফল হয়নি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.