Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

দখলের চোটে হারিয়ে যাচ্ছে ফুটপাথ

২৬ অগস্ট ২০১৬ ০২:১৫
এলাকাবাসীর প্রশ্নের জবাব দিচ্ছেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ধীমান সাহা। —সব্যসাচী ইসলাম

এলাকাবাসীর প্রশ্নের জবাব দিচ্ছেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ধীমান সাহা। —সব্যসাচী ইসলাম

•মুরারই এলাকার যানজট সমস্যা সমাধানে অটো, ট্রেকার বা টোটোর জন্য একটি স্ট্যান্ড করলে যানজট সমস্যা সমাধান অনেকটা দূর হয়। এক্ষেত্রে পঞ্চায়েত সমিতি কি ভূমিকা নিয়েছে? মুরারই বাইপাস রাস্তা দ্রুত নির্মাণের অবস্থা কি ?

দিলীপ কুমার পিপাড়া, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: মুরারইয়ের মধ্যে চলাচলকারী ট্রেকার, অটো ও টোটোগুলির মধ্যে এখনও পর্যন্ত ২০০ টির নাম ব্লক প্রশাসনের কাছে নথিভূক্ত হয়েছে। খুব শীঘ্রই মুরারই কলেজ সংলগ্ন একটি জায়গায় অটো স্ট্যান্ড করে দেওয়া হবে। সেখান থেকে যাত্রীদের অটো ধরতে হবে। যত্রতত্র অটো বা ট্রেকার বা যন্ত্র চালিত ভ্যান দাঁড় করানো যাবে না। এবং একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে গার্লস স্কুল বা ব্লক অফিসের পাশ দিয়ে অটো বা অন্যান্য যান চলাচলের জন্য নিষেধাঞ্জা জারি করা হবে।

Advertisement

বাইপাস রাস্তা নির্মাণের ক্ষেত্রে পূর্ত দফতরের কাছে বিস্তারিত রিপোর্ট জমা দেওয়া হয়েছে। এখনও তাদের কাছ থেকে কোনও উত্তর পাওয়া যায়নি। রাস্তাটি নির্মাণে প্রয়োজনে এনআরইজিএ প্রকল্পে পঞ্চায়েত সমিতি সহযোগিতা করবে।

•মুরারই শহরে সুলভ শৌচালয়ের খুব অভাব। এক্ষেত্রে পঞ্চায়েত সমিতি কী ভূমিকা নিয়েছে?

আব্দুস সামাদ, বাহাদুরপুর

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: পঞ্চায়েত সমিতির পক্ষ থেকে মুরারই এর ভাদিশ্বর বাস স্ট্যান্ড এলাকায়, নতুন বাজার, হাসপাতাল এলাকায় সুলভ শৌচালয় নির্মাণ করা হয়েছে। পঞ্চায়েত সমিতির অধীন ৭টি পঞ্চায়েতের মধ্যে মুরারই পঞ্চায়েত ছাড়া বাকি ৬টি পঞ্চায়েতে ২ লক্ষ টাকা ব্যয়ে একটি করে কমিউনিটি শৌচালয় নির্মাণ করা হয়েছে। মুরারই সব্জি হাট এলাকায় একটি কমিউনিটি শৌচালয় নির্মাণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। জায়গার অভাবে করা যায়নি।

অন্য দিকে নির্মল বাংলা প্রকল্পে শৌচালয় নির্মাণ প্রকল্পে পঞ্চায়েত সমিতির পলসা পঞ্চায়েতকে জেলা প্রশাসন শৌচালয় নির্মাণে নির্মল পঞ্চায়েত হিসাবে বেছে নিয়েছে। মহুরাপুর পঞ্চায়েতে পঞ্চাশ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। তৃতীয় পর্যায়ে চাতরা পঞ্চায়েতে সার্ভের তালিকা অনুযায়ী বাড়ি বাড়ি শৌচালয় নির্মাণের কাজ শুরু হবে।

• মুরারই এ খেলাধুলার চর্চার জন্য খেলার মাঠের অভাব আছে। মুরারই অক্ষয় কুমার ইন্সটিটিউশন মাঠে খেলাধুলা হয়। কিন্তু মাঠটি উপযুক্ত রক্ষণাবেক্ষণ এবং মাঠে দর্শকাসন ও খেলোয়াড়দের বিশেষ করে মহিলা খেলোয়াড়দের ড্রেসিং রুমের প্রয়োজন আছে। শিশু ও বালকদের জন্য আলাদা করে খেলার মাঠ করে দিলে ভালো হয়।

বিকাশ চন্দ্র দত্ত, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: এমএসডিপি প্রকল্পে খেলার মাঠ সংস্কারের জন্য একাধিক বার প্রকল্প পাঠানো হয়েছে। কিন্তু কোনও বারই প্রকল্পের অনুমোদন দেয়নি। পাইকা প্রকল্পের মাধ্যমে এলাকার গুসকিরা মাঠটি সংস্কারের জন্য প্রকল্প পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়াও এলাকায় একটি স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য রাজ্য সরকারের ক্রীড়া ও যুবকল্যাণ দফতরে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

•লিটল ম্যাগাজিন প্রকাশ থেকে পুস্তক প্রকাশ, নাট্য চর্চা, গানমেলা, পিঠে পুলি উৎসব— যে কোনও ধরনের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে মুরারই জেলাতে অগ্রণী ভূমিকা গ্রহণ করে চলেছে। অথচ এখানে কোনও অডিটোরিয়াম নেই। মুক্তমঞ্চেও স্ট্যাচুগুলি ঠিক মতো রক্ষণাবেক্ষণ হয় না। এসব ক্ষেত্রে পঞ্চায়েত সমিতির কি ভাবনা চিন্তা করছে?

সুনীল সাগর দত্ত, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: পঞ্চায়েত সমিতির ভবনের উপর তলায় একটি অডিটোরিয়াম নির্মাণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে প্রায় ১ কোটি টাকার বেশি টাকা দরকার। এলাকাবাসীর চাহিদার কথা লিখিত আকারে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির কাছে জানালে উপনমহলকেও সে ব্যাপারে ওয়াকিবহাল করা যাবে।

•মুরারই এ দূরপাল্লার ট্রেনগুলির খুব কম স্টপেজ আছে। আপাতত কলকাতা বালুরঘাট ট্রেনটির স্টপেজ-সহ মুরারই থেকে দুর্গাপুর, আসানসোল, সিউড়ি যাওয়ার জন্য সরকারি বাস চলাচলের ব্যবস্থা করলে ভালো হয়।

নাসরিন বানু, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: দূরপাল্লার ট্রেনগুলির স্টপেজ মুরারই এ দেওয়ার ব্যাপারে পঞ্চায়েত সমিতির কিছু করার নেই। এক্ষেত্রে এলাকাবাসীর দাবিগুলির সহমত পোষণ ছাড়া পঞ্চায়েত সমিতির বেশি কিছু করার নেই। তবে কিছু দিন আগেই মুরারই–কলকাতা দক্ষিণবঙ্গ পরিবহন সংস্থার বাস সার্ভিস চালু হয়েছে। খুব শীঘ্রই মুরারই থেকে সিউড়ি সরকারি বাস চালু হবে।

•মুরারই এলাকায় একটি গার্লস কলেজ এবং চাতরা এলাকায় একটি গার্লস হাইস্কুলের প্রয়োজন আছে। এক্ষেত্রে পঞ্চায়েত সমিতি উদ্যোগ নিলে ভালো হয়।

অর্নিবাণজ্যোতি সিংহ, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: মুরারই এলাকায় গার্লস কলেজ নির্মাণে এলাকাবাসীর দাবি মুখ্যমন্ত্রীকে জানাব। তবে চাতরাতে একটি গার্লস হাইস্কুলের অনুমোদন মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে পাওয়া গিয়েছে। স্কুল নির্মাণের জায়গাও পাওয়া গিয়েছে।

•মুরারই এলাকায় ফুটপাথ বলে আর কিছু নেই। ফুটপাথ না থাকার জন্য পথচারীদের চলাচল করতে অসুবিধা হচ্ছে। এলাকায় দুর্ঘটনা বাড়ছে। ফুটপাথ দখল মুক্ত করতে পঞ্চায়েত সমিতি কি ভাবছে?

কেয়া কর্মকার, ভাদিশ্বর

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: মুরারই এলাকায় ফুটপাথ দখল নিয়ে সমস্যায় জেরবার এলাকাবাসী। পঞ্চায়েত সমিতি প্রশাসনের সহায়তায় দখল মুক্ত করতে রাজি কিন্তু এলাকাবাসীর সহযোগিতা ছাড়া পঞ্চায়েত সমিতির সে কাজে সাফল্য পাওয়া মুশকিল আছে।

•মুরারই হাসপাতালের ভবনের অবস্থা খারাপ যা আছে সেটাকেও রক্ষণাবেক্ষণ ঠিক মতো হয় না। কয়েকটি ভবন পরিত্যক্ত হয়ে আছে। হাসপাতালে রোগীর পরিজনদের রাত্রিবাসের জন্য ঘর দরকার।

গুরুদাস বন্দ্যোপাধ্যায়, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: মুরারই ১ ব্লক গ্রামীণ হাসপাতালে এখন আগের থেকে চিকিৎসক বেশি আছে। ভবনগুলি সংস্কারের প্রয়োজন আছে। রোগীদের থাকার জন্য প্রতীক্ষাশালা আছে।

•মুরারই এলাকায় প্লাস্টিক দূষণ প্রতিরোধে পঞ্চায়েত সমিতি কি ভূমিকা নিয়েছে ?

অরিন্দম সিংহ, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: পঞ্চায়েত সমিতি থেকে মাঝে মাঝে মাইকিং করা হয়। তবে প্লাস্টিক দূষণে এলাকাবাসীকে বেশি করে সচেতন হতে হবে।

•মুরারই এ নিকাশি ব্যবস্থা বিশেষ করে হাসপাতাল পাড়া, ব্লক অফিস যাওয়ার রাস্তা, সব্জি হাট এলাকা বেহাল। পঞ্চায়েত সমিতি এ সব নিয়ে কি ভাবছে?

সৌরীশ কুণ্ডু, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: মুরারই এলাকায় নিকাশি ব্যবস্থা জোরদার করতে বেশ কিছু জায়গা নতুন ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। আগামীদিনেও করা হবে। খুব শীঘ্রই প্যারাডাইস সিনেমা হল থেকে মুরারই বেগুন মোড় পর্যন্ত নতুন একটি নিকাশি নালা সংস্কার করা হবে।

•মুরারই এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা নিয়ে পঞ্চায়েত সমিতির কি চিন্তা ভাবনা?

মোহিনী মোহন কুণ্ডু, মুরারই

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি: মুরারই এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা সমাধানে ভাদিশ্বর এলাকায় একটি রিজার্ভার নির্মাণ করা হচ্ছে। ভাদিশ্বর জলাধার নির্মাণ করা হলে এলাকাবাসী আশা করি পানীয় জল নিয়ে সমস্যা দূর হবে। সেরকম একটা ভাবনা নিয়েই প্রকল্পের পরিকল্পনা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement