Advertisement
২৮ নভেম্বর ২০২২

দুল বন্ধক না রাখায় তরুণীকে তালাক!

কানের দুল বন্ধক রেখে শ্বশুরবাড়ির লোকের হাতে টাকা তুলে দেননি, এই ‘অপরাধে’ স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার অভিযোগ উঠল। সোমবার বীরভূমের দুবরাজপুর থানায় এই মর্মে অভিযোগ করেছেন শহরের সাত নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা লিলি বিবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুবরাজপুর শেষ আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০১:৫৯
Share: Save:

কানের দুল বন্ধক রেখে শ্বশুরবাড়ির লোকের হাতে টাকা তুলে দেননি, এই ‘অপরাধে’ স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার অভিযোগ উঠল। সোমবার বীরভূমের দুবরাজপুর থানায় এই মর্মে অভিযোগ করেছেন শহরের সাত নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা লিলি বিবি। কথা মতো কাজ না করায় স্বামী শের খান ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধর করেছেন বলেও তাঁর দাবি।

Advertisement

কয়েক মাস আগেই তাত্ক্ষণিক তিন তালাককে (তালাক-এ-বিদাত) অসাংবিধানিক বলে জানিয়ে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সে কথা মনে করিয়ে লিলির আইনজীবী তপন সাহানা বলছেন, ‘‘দেশের সর্বোচ্চ আদালত বলেছে, এই প্রথা ইসলামে নেই। কোরানেও এর কোনও উল্লেখ নেই। তার পরেও তিনটি শব্দ কেন মহিলাদের জীবন তছনছ করে দেবে?’’

অভিযুক্ত শের খান মার্বেলের মিস্ত্রি। বছর দু’য়েক আগে ভালবেসেই বিয়ে করেন। বছরখানেকের মেয়েও রয়েছে। লিলির অভিযোগ, বিয়ের ছ’মাস যেতে না যেতেই শ্বশুরবাড়ির তাগাদায় তাঁর দিনমজুর বাবা ধার-দেনা করে নগদ ২০ হাজার টাকা, সোনার দুল দেন। ওই দুল বন্ধক রেখেই টাকা চাওয়ার অভিযোগ এনেছেন বধূ।

আরও পড়ুন: বাংলাতেও পরীক্ষা হবে রেলে, শিথিল হল যোগ্যতাও

Advertisement

লিলির স্বামী শের খান অবশ্য বলছেন, ‘‘রাগের মাথায় তিন তালাক বলে ফেলেছি। আমি স্ত্রীকে ফিরে পেতে চাই।’’ শুনে লিলি বলছেন, ‘‘তালাক দেওয়ার পরে সেই পথ কী এতই সহজ?’’

স্থানীয় কাউন্সিলর শেখ নাজিরউদ্দিন জানাচ্ছেন, দু’পক্ষই চাইলে শরিয়তি আইন মেনে সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করবেন। তেমনটা চাইছে দুই পরিবারও। কোন পথে মীমাংসা হয়, নজরে রেখেছে দুরবাজপুর পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.