Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

TMC-BJP: তৃণমূলকে বিজেপির কে ভোট দিল, চর্চা

নিজস্ব সংবাদদাতা 
বাঘমুণ্ডি ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৭:৩৪
বুধবার বাঘমুণ্ডি বাজারে তৃণমূলের মিছিল।

বুধবার বাঘমুণ্ডি বাজারে তৃণমূলের মিছিল।
নিজস্ব চিত্র।

অনাস্থা সংক্রান্ত ভোটে পুরুলিয়ার বাঘমুণ্ডি পঞ্চায়েত সমিতির বিজেপির সভাপতি অপসারিত হয়েছিলেন আগেই। বুধবার ওই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন তৃণমূলের ক্ষুদিরাম কৈবর্ত।

প্রশাসন সূত্রের খবর, এ দিন সভাপতি নির্বাচনের ভোটাভুটিতে তৃণমূলের ১২ জন এবং বিজেপির পাঁচ জন সদস্য যোগ দেন। বিডিও (বাঘমুণ্ডি) দেবরাজ ঘোষ বলেন, ‘‘সভাপতি নির্বাচনে ভোটাভুটি হয়েছে। ১৩টি ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন ক্ষুদিরাম কৈবর্ত।’’

গত জুলাই মাসে ওই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন তৃণমূলের ১২ জন সদস্য। ৬ সেপ্টেম্বর অনাস্থা সংক্রান্ত তলবিসভায় অনাস্থার পক্ষে ১২ জন ভোট দেন। তা হলে এ দিন তৃণমূলের প্রধানকে বাড়তি এক জন কে ভোট দিলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিজেপির প্রাক্তন সভাপতির পক্ষে চারটি ভোট পড়ায়, রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, ওই দলেরই এক সদস্য তৃণমূলের পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

Advertisement

বিজেপির জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর অবশ্য অভিযোগ, ‘‘তৃণমূল ভয় দেখিয়ে এবং প্রলোভন দিয়ে আমাদের দলের সদস্যদের নিজেদের শিবিরে টানছে।’’ যদিও সে অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি সৌমেন বেলথরিয়া। তাঁর দাবি, ‘‘বিজেপি নিজেদের সদস্যদের ধরে রাখতে না পেরে খামোখা আমাদের দলের দিকে অভিযোগ তুলছে।’’

পঞ্চায়েত সমিতির দখল নেওয়ার পরে, এ দিন তৃণমূল বাঘমুণ্ডি বাজারে মিছিল করে। তার পুরোভাগে ছিলেন বাঘমুণ্ডির দলীয় বিধায়ক সুশান্ত মাহাতো। তবে মিছিলে অনেকের মুখেই মাস্ক ছিল না বলে অভিযোগ। তৃণমূলের বাঘমুণ্ডি ব্লক নেতৃত্বের দাবি, ‘‘অধিকাংশ কর্মী-সমর্থকই মাস্ক নিয়ে মিছিলে ছিলেন। কেউ হয়তো তাড়াহুড়ো করে মাস্ক নিতে ভুলে গিয়েছেন।’’

গত পঞ্চায়েত ভোটে ২১টি আসনের ওই পঞ্চায়েত সমিতিতে বিজেপি পেয়েছিলো ন’টি আসন। তৃণমূল ও কংগ্রেস যথাক্রমে ছয় এবং পাঁচটি আসন পায়। একটি আসনে জয়ী হন ফরওয়ার্ড ব্লকের সদস্য। কংগ্রেসের সমর্থনে বোর্ড গড়েছিল বিজেপি। সহ-সভাপতি হন কংগ্রেসের ক্ষুদিরাম কৈবর্ত। বোর্ড গঠনের কিছু দিন পরে, কংগ্রেসের দুই সদস্য তৃণমূলে যোগ দেন। কয়েক মাস আগে বিজেপির এক সদস্যের মৃত্যু হয়। গত জুলাই মাসে ক্ষুদিরাম এবং বিজেপির তিন সদস্য তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় সমিতিতে তৃণমূলের সদস্য সংখ্যা বেড়ে হয় ১২। ওই ১২ জনই সভাপতির বিরুদ্ধে অনাস্থা এনেছিলেন।



Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement