Advertisement
০১ অক্টোবর ২০২২
Congresss

Anis Khan & Congrss: রাহুল-প্রিয়ঙ্কা আসুন আনিসের বাড়ি ও ডেউচা পাঁচামিতে সনিয়াকে আবেদন আব্দুল মান্নানের

সনিয়াকে এই চিঠি পাঠানোর কথা স্বীকার করে নিয়েছেন এই প্রবীণ কংগ্রেস নেতা। তিনি বলেন, ‘‘আমি সভানেত্রীকে চিঠি লিখে রাজ্য রাজনীতির কথাই জানিয়েছি। যেভাবে একজন ছাত্রকে খুন করা হল।      

সনিয়া গাঁধীকে চিঠি লিখলেন প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান।

সনিয়া গাঁধীকে চিঠি লিখলেন প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২ ২০:৩১
Share: Save:

কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধীকে চিঠি লিখলেন প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান। বৃহস্পতিবার সভানেত্রীকে চিঠি লিখে রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি জানিয়ে রাহুল গাঁধী ও প্রিয়ঙ্কা গাঁধীকে পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর আবেদন জানিয়েছেন তিনি। আমতায় নিহত আনিস খানের মৃত্যু নিয়ে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল। সেই কথা নিজের চিঠিতে উল্লেখ করে সেখানে রাহুল-প্রিয়ঙ্কাকে পাঠানোর আবেদন জানিয়েছেন মান্নান। পাশাপাশি, ডেউচা পাঁচামি প্রকল্পের বিরুদ্ধে স্থানীয় মানুষের জনরোষের কথাও নিজের চিঠিতে উল্লেখ করেছেন তিনি। সেখানও রাহুল-প্রিয়ঙ্কাকে পাঠাতে বলেছেন।

সনিয়াকে এই চিঠি পাঠানোর কথা স্বীকার করে নিয়েছেন এই প্রবীণ কংগ্রেস নেতা। তিনি বলেন, ‘‘আমি সভানেত্রীকে চিঠি লিখে রাজ্য রাজনীতির কথাই জানিয়েছি। যেভাবে একজন ছাত্রকে খুন করা হল লিখেছি সে কথা। সেখানে এ-ও বলেছি কীভাবে মানুষের আন্দোলনকে দমন করার চেষ্টা করছে তৃণমূল সরকার। দলের দুই শীর্ষ নেতাকে পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর আবেদন জানিয়েছি।’’

মান্নান আরও বলেন, ‘‘বিজেপি-র আশ্রয়ে বেড়ে ওঠা শিল্পপতি গৌতম আদানি বিনিয়োগ করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায়। এই ঘটনা থেকেই বোঝা যায় বিজেপি-তৃণমূলের সমঝোতা। এই প্রকল্প সফল করতে রাজ্য সরকার সবরকম দমন পীড়ন চালাচ্ছে।সে কথাও নিজের চিঠিতে উল্লেখ করে আমি সেখানও রাহুল-প্রিয়ঙ্কাকে আসার জন্য বলেছি।’’ তাঁর আরও বক্তব্য, ‘‘এই কঠিন সময় রাজ্যের মানুষ কংগ্রেস নেতৃত্বকে পাশে পেলে আগামী দিনে মানুষও কংগ্রেসের উপর আস্থা রাখবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.