Advertisement
১৫ জুন ২০২৪
Justice Abhijit Gangopadhyay

সিবিআই কর্তাদেরই সম্পত্তির হিসাব চান বিচারপতি! বললেন, ‘খুব খারাপ দিন আসছে’

বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় কোনও রাখঢাক না করেই বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাঁর ভরসার সিবিআইয়ের ভূমিকায় তিনি যারপরনাই অসন্তুষ্ট। বৃহস্পতিবার তাঁর এজলাসে করা প্রতিটি মন্তব্যে সেই অসন্তোষ ঝরে পড়ে।

নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার ভূমিকা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই ক্ষুব্ধ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়।

নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার ভূমিকা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই ক্ষুব্ধ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৪:০২
Share: Save:

রাজ্যে তদন্তকারী সিবিআইয়ের প্রত্যেক অফিসারের সম্পত্তির হলফনামা চান কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার ভূমিকায় ক্ষুব্ধ বিচারপতি এই নির্দেশ দিয়েছেন।

বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় কোনও রাখঢাক না করেই বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাঁর ভরসার সিবিআইয়ের ভূমিকায় তিনি যারপরনাই অসন্তুষ্ট। বৃহস্পতিবার তাঁর এজলাসে করা প্রতিটি মন্তব্যে সেই ক্ষোভ এবং অসন্তোষ ঝরে পড়ে। নিয়োগ দুর্নীতি মামলার শুনানি চলাকালীন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে হুঁশিয়ার করে বিচারপতি বলে দেন, ‘‘সিবিআই কল্পনাও করতে পারবে না তাদের সামনে কতটা খারাপ দিন আসতে চলেছে।’’

নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার ভূমিকা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই ক্ষুব্ধ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই এক সিবিআই কর্তাকে নিয়োগ মামলার বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) থেকে সরিয়ে দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার ওই সিবিআই কর্তা সোমনাথ বিশ্বাসের সম্পত্তির হলফনামাও পেশ করতে বলেছেন বিচারপতি। যদিও কেন এক সিবিআই কর্তার সম্পত্তির হলফনামা চাওয়া হল, তাঁর বিরুদ্ধে কোনও আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে কি না, তা স্পষ্ট করেননি।

বৃহস্পতিবার নিয়োগ মামলার শুনানিতে উপস্থিত সিবিআই আইনজীবীকে বস্তুত একের পর এক ভর্ৎসনায় ধরাশায়ী করেছেন বিচারপতি। তদন্তের ঢিমে তাল নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিচারপতি বলেন, ‘‘সারা পশ্চিমবঙ্গের লোক তাকিয়ে বসে আছে, কী হবে। আপনারা ইয়ার্কি মারছেন? সোমনাথ বিশ্বাসের বিরুদ্ধে বিভাগীয় পদক্ষেপ করা উচিত।’’ এর পর অবশ্য সোমনাথ বিশ্বাসের পাশাপাশি সিবিআইয়ের সমস্ত তদন্তকারী অফিসারেরই সম্পত্তির হলফনামা চান বিচারপতি। এমনকি তাঁকে এ-কথাও বলতে শোনা যায় যে, ‘‘আমি তো দেখছি এ বার ইংল্যান্ডের তদন্তকারী সংস্থা এমআই-৫ এর উপর ভরসা করতে হবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE