Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

‘নিজের শিশুর সামনে বিষপাত্র এগিয়ে দেওয়ার আগে ভাবতে হচ্ছে’, বললেন শোভন

শোভনের গলায় দলের প্রতি অভিমান স্পষ্ট। কোনও ‘অন্যায়’-এর সঙ্গে আপোস করবেন না বলে এ দিন মন্তব্য করেছেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র। রায়চকে তাঁর সঙ্গে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৩ মার্চ ২০১৯ ২২:১৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
দক্ষিণ কলকাতার ফ্ল্যাটে সাংবাদিকদের মুখোমুখি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়। নিজস্ব চিত্র

দক্ষিণ কলকাতার ফ্ল্যাটে সাংবাদিকদের মুখোমুখি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়। নিজস্ব চিত্র

Popup Close

এই মুহূর্তে তাঁদের বিজেপিতে যোগদানের কোনও সম্ভাবনা যে নেই, তা আগেই স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার বৈশাখীর সাংবাদিক সম্মেলন শেষ হতেই মিডিয়ার সামনে এলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। এই প্রথম বার বিশদে মুখ খুললেন তাঁকে ঘিরে তৈরি হওয়া জল্পনা নিয়ে। শোভনের গলায় দলের প্রতি অভিমান স্পষ্ট। কোনও ‘অন্যায়’-এর সঙ্গে আপোস করবেন না বলে এ দিন মন্তব্য করেছেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র। রায়চকে তাঁর সঙ্গে যা ঘটেছে, তাতে তিনি অত্যন্ত ‘মর্মাহত’ বলে শোভন এ দিন জানিয়েছেন। সেই সঙ্গেই তাঁর তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য, ‘‘তৃণমূল কোনও এক জন মানুষের দল নয়।’’

বিজেপির তরফ থেকে কেউ তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেননি, কোনও দলের কাছ থেকে কোনও লোকসভা আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রস্তাব পাননি— এ দিন সংবাদমাধ্যমকে এমনই জানান শোভন। কিন্তু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ফোন তো এসেছে, তিনি তো বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেছেন, যে কোনও রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত একসঙ্গেই নেবেন বলেও তো বৈশাখী একাধিক বার জানিয়েছেন। শোভন এ সব প্রশ্নের জবাব খুব বিশদে দিতে চাননি। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এক জন স্বাধীন মানুষ, তাঁর সঙ্গে কার যোগাযোগ বা কথা বা বৈঠক হবে, তাঁকে কে কী ধরনের প্রস্তাব দেবেন, তা তিনি (শোভন) নিয়ন্ত্রণ করেন না— শোভনের বক্তব্যের সারকথা ছিল এই। তবে এ কথা জানানোর পাশাপাশি রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী এ দিন ফের বলেছেন, ‘‘বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় আমার বিপদের বন্ধু। বিপদের দিনে উনি যে ভাবে আমাকে সাহায্য করেছেন এবং সে কারণে তাঁকে নিয়ে যে ধরনের আলোচনা হচ্ছে, তা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। পরিস্থিতির অপব্যবহার করা হচ্ছে। যা যা বলা হচ্ছে, তার সঙ্গে বাস্তবের কোনও মিল নেই।’’

তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে তাঁর যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে, তার কারণ সম্পর্কেও শোভন এ দিন মুখ খুলেছেন। সরাসরি কিছু বলেননি, তবে ইঙ্গিত খুব স্পষ্ট। তাঁকে নিয়ে নানা ‘অপব্যাখ্যা’ তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে কোনও কোনও শিবির থেকে এবং তার জেরে তাঁর সঙ্গে ‘অন্যায়’ হয়েছে— দাবি শোভনের। সেই ‘অন্যায়’ তিনি মেনে নেবেন না এবং কোনও ‘অপব্যাখ্যা’র জবাব দেওয়ার দায় তাঁর নেই— এই বার্তা বেশ স্পষ্ট ভাবেই এ দিন দিতে চেয়েছেন বেহালা পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক।

Advertisement

আরও পড়ুন: এখনই বিজেপিতে নয়, তবে বন্ধ হয়নি কথাবার্তা, বলছেন বৈশাখী

কয়েক দিন আগে রায়চকে তাঁকে যে পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়েছিল, সে প্রসঙ্গেও এ দিন মুখ খুলেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। উগরে দিয়েছেন তীব্র ক্ষোভ। তাঁর কথায়, ‘‘আমার সঙ্গে যা ঘটেছে, তা যেন অতি বড় শত্রুর সঙ্গেও না হয়।’’ বৈশাখীর পরিবারের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে রায়চকের যে বাংলোয় শোভন চট্টোপাধ্যায় ছিলেন, সেই বাংলো ঘিরে গত রবিবার সন্ধ্যা থেকে সোমবার গভীর রাত পর্যন্ত সশস্ত্র দুষ্কৃতীদের তাণ্ডব চলে বলে অভিযোগ। শোভন এবং বৈশাখীকে অকথ্য গালিগালাজ করার এবং প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। বার বার পুলিশের সাহায্য চেয়েও মেলেনি বলে বৈশাখী সংবাদমাধ্যমকে জানান। শোভন এ দিন বলেন, ‘‘আমি ভীষণ মর্মাহত। এমনটা ঘটবে, আমার কাছে একেবারেই অভিপ্রেত ছিল না।’’ কারও বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট করে অভিযোগের আঙুল শোভন তোলেননি। তবে কণ্ঠস্বরে একরাশ অভিমান নিয়ে তিনি বলেন, ‘‘আমি দলের সঙ্গে ৩০ বছর যুক্ত। সেই দলের কেউ যদি এই কাজের সঙ্গে যুক্ত থেকে থাকেন, তা হলে সেটা কোনও ভাবেই অভিপ্রেত নয়।’’

আরও পড়ুন: সারা দেশে চলছে অঘোষিত ‘সুপার-ইমার্জেন্সি’, বিজেপিকে তোপ মমতার

শোভন ওই প্রসঙ্গেই আরও বলেন, ‘‘তৃণমূল কোনও এক জন মানুষের দল নয়। লক্ষ লক্ষ কর্মীর রক্ত-ঘাম মিশে রয়েছে এই দলে।’’ তৃণমূলকে ‘নিজের হাতে বড় করা শিশু’র সঙ্গেও তুলনা করেন শোভন। বলেন, ‘‘নিজের শিশু তো, তার মুখের সামনে বিষের পাত্রটা এগিয়ে দেওয়ার আগে তাই ভাবতে হচ্ছে। হাতটা টেনে রাখছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Tags:
Sovan Chatterjee Baisakhi Banerjee TMCশোভন চট্টোপাধ্যায়বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়
Something isn't right! Please refresh.

Advertisement