Advertisement
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Subrata Bakshi

বুধে যোগ, বৃহস্পতিতেই বিয়োগ, বক্সীর ছেলে সপ্তর্ষির নাম বাদ তৃণমূল যুবর রাজ্য কমিটি থেকে

তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রতর পুত্র সপ্তর্ষি বক্সীকে সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছিল। এই প্রথম তৃণমূলের কোনও সাংগঠনিক পদ দেওয়া হয়েছিল সপ্তর্ষিকে। কিন্তু মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বাদ দেওয়া হল তাঁকে।

তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর পুত্র সপ্তর্ষিকে যুব সংগঠনের সম্পাদক পদ দিয়েও সরানো হল।

তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর পুত্র সপ্তর্ষিকে যুব সংগঠনের সম্পাদক পদ দিয়েও সরানো হল। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ১৪:৩৪
Share: Save:

এক দিনের মধ্যেই সংগঠন থেকে ছেঁটে ফেলা হল সুব্রত বক্সীর ছেলে সপ্তর্ষি বক্সীকে। বৃহস্পতিবার এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে এ কথা জানানো হয়েছে। বুধবার প্রকাশিত যুব সংগঠনের তালিকায় স্থান পেয়েছিলেন সপ্তর্ষি। তাঁকে যুব সংগঠনের সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছিল। কিন্ত কেন তাঁকে এই পদ থেকে সরানো হল, তা ওই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়নি। ১৭ জন সম্পাদকের মধ্যে একজন ছিলেন তিনি। তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রতর পুত্র সপ্তর্ষি বক্সীকে সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছিল। এই প্রথম তৃণমূলের কোনও সাংগঠনিক পদ দেওয়া হয়েছিল সপ্তর্ষিকে। কিন্তু মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বাদ দেওয়া হল তাঁকে। বাবা তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে ২৫ বছর ধরে একই পদে বহাল রয়েছেন। এ ছাড়াও তৃণমূলের প্রতীকে বিধায়ক, সাংসদ-মন্ত্রীও হয়েছেন। বহুজাতিক সংস্থায় চাকরি করা সপ্তর্ষির রাজনৈতিক জীবনের অভিষেক হয়েও হল না বলেই মনে করছে বাংলার রাজনীতির কারবারিরা।

Advertisement

বুধবারই তৃণমূলের যুব সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সেই কমিটি থেকে সপ্তর্ষিকে ছেঁটে ফেলে আরও পাঁচ জনকে যুক্ত করা হল। বুধবার বলা হয়, তৃণমূল চেয়ারপার্সন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুমোদনের পরেই দলের যুব সংগঠনের পদাধিকারিদের নাম ঘোষণা করা হল। আর সেই কমিটিতেই রমরমা আগামী প্রজন্মের। ঘোষিত নতুন কমিটিতে সভানেত্রী পদে রেখে দেওয়া হয়েছে সায়নীকে। নতুন এই পাঁচ জনকে যুক্ত করলে কমিটির সদস্য সংখ্যা বেড়ে হল ৫২।

বুধবার ঘোষিত ৪৭ জনের কমিটিতে অনেক ক্ষেত্রেই রয়েছেন তৃণমূল নেতা-নেত্রীদের সন্তানেরা। একমাত্র সপ্তর্ষিকে বাদ দিয়ে বাকি সবাইকেই নিজ নিজ পদে বহাল রাখা হয়েছে। সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে জায়গা পেয়েছেন প্রয়াত বাম নেতা ক্ষিতি গোস্বামীর কন্যা তথা কলকাতা পুরসভার কাউন্সিলর বসুন্ধরা গোস্বামী। গত বছর কলকাতা পুরসভার নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে জয়ী হয়েছেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যর পুত্র সৌরভ বসু ও বাণিজ্যমন্ত্রী শশী পাঁজার মেয়ে পূজা পাঁজা। দু’জনকেই নতুন কমিটিতে সাধারণ সম্পাদক পদে রেখে দেওয়া হয়েছে। কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের পুত্র সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়কে সাধারণ সম্পাদক পদে রেখে দেওয়া হয়েছে। একই ভাবে বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা সঞ্জয় বক্সীর পুত্র সৌম্য বক্সীকেও সাধারণ সম্পাদক পদে রেখে দেওয়া হয়েছে।

১৭ জনকে সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছে। সেই সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছে প্রয়াত মন্ত্রী সাধন পাণ্ডে কন্যা শ্রেয়া পাণ্ডেকে। কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র তথা কাশীপুর বেলগাছিয়ার বিধায়ক অতীন ঘোষের মেয়ে প্রিয়দর্শিনী ঘোষকেও সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছে।

Advertisement

সায়নীকে সভাপতি পদে রেখে নতুন কমিটিতে চার জন সহ সভাপতি রাখা হয়েছে। এই চার জনের মধ্যে রয়েছেন দু’জন বিধায়ক। প্রথম জন হলে অভিনেতা তথা চণ্ডীপুরের বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী এবং বাঘমুন্ডীর বিধায়ক সুশান্ত মাহাত। তাঁদের সঙ্গেই সহ সভাপতি পদ পেয়েছেন বিধায়ক স্বর্ণকমল সাহার পুত্র অর্পণ সাহা। একই ভাবেই সহ সভাপতি করা হয়েছে নদিয়া জেলা তৃণমূলের দাপুটে নেতা শঙ্কর সিংহের পুত্র শুভঙ্কর সিংহকে। যদিও আগের কমিটিতে এঁরা সহ সভাপতিই ছিলেন। এ ছাড়াও আট জনকে এগ্‌জিউটিভ কমিটিতে রাখা হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.