Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
SUCI

১৮ বছর পর কারামুক্তি এসইউসির দুই নেতার, জেল থেকে বেরিয়েই গেলেন দলীয় দফতরে

কুলতলির ন’বারের এসইউসি বিধায়ক প্রবোধ পুরকায়েতকে একটি খুনের মামলায় ‘ফাঁসানো’ হয়েছিল বলে অভিযোগ। সেই মামলাতেই এসইউসির এই দুই নেতারও জেল হয়।

SUCI leaders has come out of jail after 18 years.

এসইউসির সাধারণ সম্পাদক প্রভাস ঘোষের (মাঝখানে) সঙ্গে জেল থেকে মুক্তি পাওয়া দুই নেতা। ছবি: ফেসবুক।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৩৭
Share: Save:

এসইউসির কুলতলির দুই নেতা ১৮ বছর বাদে জেল থেকে মুক্তি পেলেন। অনিরুদ্ধ হালদার এবং বাঁশিনাথ গায়েন নামের ওই দুই নেতা একটি খুনের মামলায় জেল খাটছিলেন। বৃহস্পতিবার মুক্তি পেয়েছেন তাঁরা। কুলতলির একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছিলেন বাঁশিনাথ। এখন তাঁর বয়স ৮৪ বছর। অনিরুদ্ধ দীর্ঘ দিন ধরে এসইউসির সঙ্গে যুক্ত। তিনি দলের অন্যতম সংগঠক এবং রাজ্য কমিটির সদস্য। অভিযোগ, মিথ্যা একটি মামলায় তাঁদের ‘ফাঁসানো’ হয়েছিল। অভিযোগের তির তৎকালীন শাসকদল সিপিএমের দিকে।

কুলতলির ন’বারের এসইউসি বিধায়ক প্রবোধ পুরকায়েতকে একটি খুনের মামলায় ‘ফাঁসানো’ হয়েছিল বলে অভিযোগ। সেই মামলাতেই বাঁশিনাথ এবং অনিরুদ্ধের জেল হয়। এসইউসি নেতৃত্ব জানিয়েছেন, প্রবোধ ১৪ বছর জেল খাটার পর মুক্তি পেয়েছিলেন। কয়েক বছর আগে তাঁর মৃত্যু হয়। এ প্রসঙ্গে এসইউসি নেতা অমিতাভ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সিপিএম সেই সময় মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে আমাদের নেতা, সংগঠকদের জেলে পাঠিয়েছিল। গোটাটা করেছিল আচমকা। লোপাট করে দিয়েছিল ফাইল। আদালতে পুনর্বিবেচনার আর্জি জানিয়েও লাভ হয়নি।’’

বৃহস্পতিবার এসইউসির বর্ষীয়ান ওই দুই নেতা জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর দলের রাজ্য দফতরে গিয়ে সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক প্রভাস ঘোষের সঙ্গে দেখা করেন।

বাম জমানায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলতলি, জয়নগর-সহ সংলগ্ন এলাকায় সিপিএমকে টক্কর দিত এসইউসি। দুই বাম দলের সংঘাত লেগেই থাকত। যে মামলায় প্রাক্তন বিধায়ক প্রবোধ-সহ বাকিরা কারাবন্দি ছিলেন, সেটি আটের দশকের ঘটনা। এসইউসির দাবি, গোটা মামলাটাই ছিল সাজানো।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

SUCI Kultali CPM
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE