Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩
Soil Erosion

Ganga River Erosion: মালদহ, মুর্শিদাবাদের নদী ভাঙন রুখতে যৌথ সমীক্ষা করবে পশ্চিমবঙ্গ এবং বিহার সরকার

মালদহ ও মুর্শিদাবাদের নদী ভাঙন নতুন বিষয় নয়। এই ভাঙন রোধ করতে গত কয়েক মাসে দফায় দফায় আলোচনা চালিয়েছিল সেচ দফতর।

নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত মুর্শিদাবাদ, মালদহের একাধিক গ্রাম।

নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত মুর্শিদাবাদ, মালদহের একাধিক গ্রাম। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০২২ ১২:০৪
Share: Save:

মালদহ এবং মুর্শিদাবাদ জেলার নদী ভাঙন রুখতে যৌথ সমীক্ষা করবে পশ্চিমবঙ্গ ও বিহার সরকার। সম্প্রতি সেচ দফতর সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে। মালদহ ও মুর্শিদাবাদের নদী ভাঙন নতুন বিষয় নয়। এই ভাঙন রোধ করতে গত কয়েক মাসে দফায় দফায় আলোচনা চালিয়েছিল সেচ দফতর। প্রথম সিদ্ধান্ত হয়েছিল, ভাঙন প্রবণ এই দুই জেলায় একক ভাবে সমীক্ষার কাজ করবে সেচ দফতর। কিন্তু পরে ভাঙন পরিস্থিতি দেখে বিহার সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করে রাজ্য। সেচ দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, প্রতিবেশী রাজ্য বিহারও নদী ভাঙনের সমস্যায় জর্জরিত। তাই করালগ্রাসী ভাঙন নিয়ে পরস্পরের সঙ্গে আলোচনায় বসেন দুই রাজ্যের সেচ দফতরের কর্তারা।

দ্বিপাক্ষিক আলোচনাতেই দুই রাজ্যের সেচ দফতরের কর্তারা যৌথ সমীক্ষার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। মে মাসের ৫ তারিখ থেকে মালদহে এই সমীক্ষার কাজ শুরু হবে। সমীক্ষার প্রথম দিনে সেখানে উপস্থিত থাকবেন রাজ্যের সেচ দফতরের সব বরিষ্ঠ আধিকারিক। মালদহের মোথাবাড়ি, রতুয়া, মানিকচক, বৈষ্ণবনগর ইত্যাদি এলাকায় এই সমীক্ষার কাজ হবে। পরে এই সমীক্ষার কাজ হবে মুর্শিদাবাদ জেলায়। সেখানেও সামশেরগঞ্জ এলাকায় ভাঙন বেশ বড় আকার নিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের ভাঙন কবলিত এলাকায় সমীক্ষা কাজ শেষ করে সমীক্ষক দলটি যাবে প্রতিবেশী রাজ্যে। সেচ প্রতিমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন বলেছেন, ‘‘যৌথ সমীক্ষার কাজ শেষ হলে ঠিক হবে কী ভাবে ভাঙনের মোকাবিলা করা যায়। যেহেতু ভাঙন রুখতে প্রচুর পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন, তাই পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতেই এই কাজে এগোনো হবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.