Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
C V Ananda Bose

শপথ নিয়েই ‘সুভাষ বোস’-এর মূর্তিতে মালা দিতে গেলেন রাজ্যপাল বোস

বুধবার সকালেই ছিল রাজ্যপাল আনন্দের শপথগ্রহণের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে এসেছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ অন্যান্য বিশিষ্টরাও।

রেড রোডে নেতাজির মূর্তির পাদদেশে দাঁড়িয়ে ছবি তুললেন সস্ত্রীক রাজ্যপাল। পাশে রাজ্যের দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এবং শশী পাঁজা।

রেড রোডে নেতাজির মূর্তির পাদদেশে দাঁড়িয়ে ছবি তুললেন সস্ত্রীক রাজ্যপাল। পাশে রাজ্যের দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এবং শশী পাঁজা। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ নভেম্বর ২০২২ ১৯:৫৯
Share: Save:

কলকাতা থেকে কোট্টায়ামের দূরত্ব অনেকটা। তবু কেরলের শহরতলি বাসিন্দা এক বাবা বাংলার স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুকে ভালবেসে নিজের ছেলের নামে জুড়ে দিয়েছিলেন প্রিয় নায়কের নামের পদবি— বোস। ঘটনাচক্রে, সেই ছেলে বুধবার পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল হিসাবে শপথ নিলেন। আনুষ্ঠানিক পর্ব মিটতেই রাজভবন থেকে নতুন রাজ্যপালের গাড়ি ছুটল রেড রোডের দিকে। গন্তব্য, নেতাজি মূর্তি। বাংলার দায়িত্ব নেওয়ার পরে সিভি আনন্দ বোস প্রথম তাঁর কাছেই গেলেন, যার ‘নামধন্য’ তিনি।

Advertisement

বুধবার সকালেই ছিল রাজ্যপাল আনন্দের শপথগ্রহণের অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে এসেছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রাক্তন রাজ্যপাল গোপালকৃষ্ণ গান্ধী, রাজ্যের মন্ত্রী, সাংসদ, বিধায়ক-সহ বহু বিশিষ্টজনেরা। মঙ্গলবার সকালে কলকাতায় পৌঁছে সেই যে রাজভবনে ঢুকেছিলেন আনন্দ, বুধবার বিকেলের আগে তিনি বার হননি। বিকেলে তিনি স্ত্রী মহালক্ষ্মীকে সঙ্গে নিয়ে রেড রোড ধরে পৌঁছন নেতাজি মূর্তির পাদদেশে।

রাজ্যপালের সঙ্গে ছিলেন কলকাতার মেয়র তথা রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। ছিলেন রাজ্যের মহিলা এবং শিশু কল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা। রাজ্যপাল যাবেন বলে ফুল দিয়ে সাজানো হয়েছিল নেতাজি মূর্তি। তার নীচে দাঁড়িয়ে ছবি তোলেন রাজ্যপাল। তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তুলতে দেখা যায় ফিরহাদ এবং শশীকেও।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.