Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

CPM: তৃণমূল নেতাদের উপর হামলার প্রতিবাদ করল বাংলা ও ত্রিপুরার সিপিএম

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৮ অগস্ট ২০২১ ১৪:২৫
ত্রিপুরায় তৃণমূলের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় প্রতিবাদী বিবৃতি সিপিএমের।

ত্রিপুরায় তৃণমূলের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় প্রতিবাদী বিবৃতি সিপিএমের।
নিজস্ব চিত্র।

ত্রিপুরায় তৃণমূল নেতৃত্বের ওপর হামলা ও তাঁদের গ্রেফতারির নিন্দা করে পাশে দাঁড়াল সিপিএম। শনিবার সকালে ও সন্ধ্যায় দু’দফায় ত্রিপুরায় তৃণমূলের যুবনেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা ও জয়া দত্তর ওপর হামলার ঘটনায় বিবৃতি প্রকাশ করে নিন্দা করল ত্রিপুরা সিপিএম। বিবৃতি প্রকাশ করে ত্রিপুরার সিপিএম রাজ্য কমিটি বলেছে, ‘আমবাসা মহকুমাএবং ধর্মনগরে তৃণমূল নেতা-কর্মী এবং অফিসে রাজ্যের শাসকদল বিজেপি-র দুর্বৃত্ত বাহিনীর ফ্যাসিস্টসুলভ আক্রমণের তীব্র নিন্দা করছে সিপিআই (এম) ত্রিপুরা রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলী। বিজেপি-র রাজত্বে রাজ্যে ভারতের সংবিধানে প্রদত্ত মত প্রকাশের, সংগঠন করার অধিকার, আইন-গণতন্ত্রের কোনও অস্তিত্ব নেই— তা সমগ্র দেশবাসীর সামনে আবারও উন্মোচিত হয়েছে। এ ধরনের ফ্যাসিস্টসুলভ আক্রমণের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে সমস্ত গণতন্ত্রপ্রিয় জনগণের প্রতি সিপিআই (এম) আহ্বান জানাচ্ছে।’

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গে সিপিএমের সঙ্গে তৃণমূলের অহি-নকুল সম্পর্ক হলেও ত্রিপুরায় তৃণমূলের ওপর আক্রমণের ঘটনার প্রতিবাদ করেছেন সিপিএমের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাসুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেছেন, “ত্রিপুরায় জঙ্গলের রাজত্ব চলছে বলে বিরোধীরা যে অভিযোগ করছেন তার সঙ্গে সিপিএম সহমত। সেখানে ক্ষমতা বদলের পর থেকেই বামপন্থীদের উপর আক্রমণ চলছে। যেভাবে ২০১১ সালের পর থেকে বাংলায় বামপন্থীদের উপর আক্রমণ নেমে এসেছিল।”

সুজন আরও বলেছেন, ‘‘বামপন্থীরা যখন বাংলা বা ত্রিপুরায় শাসন ক্ষমতায় ছিল, তখন যে কেউ সেখানে যেতে পারতেন। সকলের রাজনীতি করার অধিকার ছিল। কিন্তু বাংলায় তৃণমূল ও ত্রিপুরায় বিজেপি চায় নাবিরোধীরা রাজনীতি করুক। তাই দুই রাজ্যে বিরোধীদের উপর আক্রমণ চলছে।”

আরও পড়ুন

Advertisement