Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Emani Biswas

নিমতিতা-কাণ্ডে ফের এনআইএ-র জেরার মুখে সুতির তৃণমূল প্রার্থী ইমানি বিশ্বাস

এর আগে গত ১৮ মার্চ ইমানিকে জেরা করেন তদন্তকারীরা। সে বার দু’দফায় প্রায় ৪ ঘণ্টা ধরে তাঁকে জেরা করা হয়। এর পর ফের তলব করা হল তাঁকে।

ইমানি বিশ্বাস।

ইমানি বিশ্বাস। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
সুতি শেষ আপডেট: ০৪ এপ্রিল ২০২১ ১২:০২
Share: Save:

মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর ভোটের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তার মধ্যেই ফের জেরার মুখে পড়তে চলেছেন সুতির তৃণমূল প্রার্থী ইমানি বিশ্বাস। নিমতিতা বিস্ফোরণ-কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে তলব করেছে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। আগামী সপ্তাহের মধ্যে তদন্তকারীদের সামনে হাজিরা দিতে হবে তাঁকে।

এর আগে গত ১৮ মার্চ ইমানিকে জেরা করেন তদন্তকারীরা। সে বার দু’দফায় প্রায় ৪ ঘণ্টা ধরে তাঁকে জেরা করা হয়। তবে সে বার ইমানির কথায় তদন্তকারীরা ‘সন্তুষ্ট’ হতে পারেননি বলে জানা যায়। তাই নির্বাচনের মধ্যেই ফের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হল তাঁকে।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাতে নিমতিতা স্টেশনে বোমা বিস্ফোরণে গুরুতর আহত হন রাজ্যের শ্রমমন্ত্রী জাকির হোসেন। এখনও চিকিৎসাধীন তিনি। সেই ঘটনায় সুতিরই বাসিন্দা আবু সামাদ এবং শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করে সিআইডি। পরে তদন্তভার যায় এনআইএ-র হাতে। জানা যায়, মন্ত্রী ট্রেন ধরবেন জেনে আবুই প্ল্যাটফর্মে বিস্ফোরক ভর্তি ব্যাগ রেখে দেন। তাঁর সঙ্গে পরিকল্পনায় যুক্ত ছিলেন শহিদুল।

ধৃতদের বয়ানের ভিত্তিতে ইমানিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নোটিস পাঠায় এনআইএ। নিমতিতা কাণ্ডে ইমানির কী ভূমিকা থাকতে পারে, তা যদিও এখনও স্পষ্ট নয়। কিন্তু জাকির এবং ইমানি দু’জনেই ঔরঙ্গাবাদের বাসিন্দা। দু’জনেই বিড়ি কারখানার মালিক। তবে একই দলে থাকলেও, দুই নেতার মধ্যে সম্পর্ক ‘আদায় কাঁচকলায়’। এ নিয়ে তৃণমূল শিবির কোনও মন্তব্য করেনি।

(এই প্রতিবেদন প্রথম প্রকাশের সময় ইমানি বিশ্বাসকে সুতির বিদায়ী বিধায়ক বলে উল্লেখ করা হয়েছিল, যা ঠিক নয়। ২০১৬ সালে ইমানি তৃণমূল প্রার্থী হয়ে পরাজিত হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি সুতি কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী। অনিচ্ছাকৃত এই ত্রুটির জন্য আমরা দুঃখিত।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE