Advertisement
২৯ নভেম্বর ২০২২
Menaka Gambhir

অভিষেক-শ্যালিকাকে আটকে রাখা ঠিক হয়নি, মেনকার মামলায় হাই কোর্টে স্বীকার করল ইডি, রায় শুক্রবার

ইডির বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শ্যালিকা মেনকা গম্ভীর। তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশ না মেনে ইডি তাঁর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করেছে।

মেনকা গম্ভীর।

মেনকা গম্ভীর। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:৫৩
Share: Save:

তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শ্যালিকাকে বিমানবন্দরে আটকে রাখা ঠিক হয়নি বলে কলকাতা হাই কোর্টকে জানাল ইডি। তবে একইসঙ্গে আদালতে স্বপক্ষ সমর্থনে তাঁদের যুক্তি, ঘটনাটি ‘হয়রানি’ হলেও ‘আদালতের অবমাননা’ নয়।

Advertisement

ইডির লুক আউট নোটিসের জেরে গত ১০ সেপ্টেম্বর ব্যাঙ্কক যেতে চাওয়া মেনকা গম্ভীরকে দীর্ঘক্ষণ বিমান বন্দরে আটকে রাখার অভিযোগ ছিল অভিবাসন দফতরের বিরুদ্ধে। আদালতে মেনকার আইনজীবীরা জানিয়েছিলেন, আদালতের রক্ষাকবচ থাকা সত্ত্বেও মেনকার সঙ্গে ওই আচরণ করা হয়। যা আদালতের অবমাননার শামিল। এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটার মধ্যে ইডি এবং অভিবাসন দফতরের প্রতিক্রিয়া জানতে চেয়েছিল আদালত। সে খানেই বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে এ কথা বলেন ইডির আইনজীবী এসভি রাজু। বৃহস্পতিবার মামলাটির শুনানি শেষ হয়েছে। হাই কোর্ট জানিয়েছে, রায়দান শুক্রবার।

ইডি এবং অভিবাসন দফতরের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনেছিলেন মেনকা। কয়লা পাচার মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে ‘কড়া পদক্ষেপ’ করা যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। মানেকার অভিযোগ ছিল, সেই নির্দেশ মানা হয়নি। ব্যাঙ্কক যাওয়ার পথে তাঁকে বিমানবন্দরেই আটকে দেওয়া হয়। তার পর তাঁকে বিমানবন্দরেরই একটি ঘরে টানা দু’ঘণ্টা আটকে রাখে অভিবাসন দফতর। মেনকার আইনজীবী আদালতকে বলেন, এই ‘আটক’ করে রাখাও এক ধরনের কড়া পদক্ষেপ। সে ক্ষেত্রে ইডি এবং অভিবাসন দফতর আদালতের নির্দেশ অমান্য করেছে। আদালতের অবমাননা করেছে। বুধবার মামলাটি কলকাতা হাই কোর্টে উঠলে ইডি এবং অভিবাসন দফতরের কাছেই এই অভিযোগের জবাব চান বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যে হলফনামার আকারে ইডিকে তাদের প্রতিক্রিয়া জানাতে বলেছিলেন তিনি। অভিবাসন দফতরের কাছেও একই ভাবে জানতে চাওয়া হয়েছিল প্রতিক্রিয়া।

Advertisement

কয়লাপাচার মামলায় জড়িত সন্দেহে মেনকাকে গত ১০ সেপ্টেম্বর বিমানবন্দরে আটক করা হয়েছিল। রাত ৮টা নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে ব্যাঙ্কক যাওয়ার জন্য উড়ান ধরতে এসেছিলেন অভিষেকের শ্যালিকা। কিন্তু বিমানবন্দরে পৌঁছে তিনি পাসপোর্ট টিকিট কাউন্টারে জমা দিয়ে বোর্ডিং পাস নিতে গেলে তাঁকে বিমানে উঠতে বাধা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এর পর অভিবাসন দফতর তাঁকে প্রায় আড়াই ঘণ্টা বিমানবন্দরের একটি ঘরে বসিয়ে রাখে বলেও অভিযোগ করেন মেনকা। দীর্ঘ ক্ষণ অপেক্ষা করানোর পর অভিবাসন দফতর তাঁকে জানায়, একটি বিশেষ মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি করেছে ইডি। তাই তিনি বিমানে উঠতে পারবেন না এবং শহর ছাড়তে পারবেন না। এই আচরণের প্রতিবাদ জানিয়েই আদালত অবমাননার মামলা করেন মেনকা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.