Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
DA

DA case: বকেয়া মহার্ঘ ভাতা নিয়ে আবার হাই কোর্টে রাজ্য সরকার, নির্দেশ পুনর্বিবেচনার আর্জি

গত মে মাসে হাই কোর্ট রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল, তিন মাসের মধ্যে সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দিতে হবে সরকারকে।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১২ অগস্ট ২০২২ ১৫:০৮
Share: Save:

মহার্ঘ ভাতা নিয়ে হাই কোর্টের দেওয়া নির্দেশ পুনর্বিবেচনা করতে বলল রাজ্য সরকার। গত মে মাসে হাই কোর্ট সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল, সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা তিন মাসের মধ্যে মিটিয়ে দিতে হবে। শুক্রবার রাজ্য এই মামলা পুনর্বিবেচনার জন্য হলফনামা (রিভিউ পিটিশন) দাখিল করেছে।

রাজ্য সরকার আর্জি জানিয়েছে, আদালত যেন তার নির্দেশ পুনর্বিবেচনা করে দেখে। গত মে মাসে এই মামলায় রায় দিয়েছিল বিচারপতি হরিশ টন্ডন এবং বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তর ডিভিশন বেঞ্চে। আগামী সপ্তাহে মামলাটি এই ডিভিশন বেঞ্চেই উঠতে পারে।

কেন্দ্রীয় হারে মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) দিতে হবে, এই দাবিতে দীর্ঘ দিন আইনি লড়াই লড়ছেন রাজ্যের সরকারি কর্মীরা। গত ২০ মে কলকাতা হাই কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছিল, তিন মাসের মধ্যে বকেয়া ডিএ মেটাতে হবে রাজ্যকে। যার জেরে রাজ্যকে সরকারি কর্মীদের ৩১ শতাংশ হারে ডিএ দিতে হত। কিন্তু সেই রায়ের পর আড়াই মাসের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও রাজ্য সরকার কোনও পদক্ষেপ করেনি। অবশেষে শুক্রবার তারা হাই কোর্টের রায় পুনর্বিবেচনার আর্জি জানাল।

পঞ্চম বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী, বকেয়া মহার্ঘ ভাতার দাবিতে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল (স্যাট)-এ ২০১৬ সালে মামলা করে কনফেডারেশন অব স্টেট গভর্মেন্ট এমপ্লয়িজ। কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ৩৪ শতাংশ হারে ডিএ পান। পশ্চিমবঙ্গ সরকার মাঝে ডিএ বাড়ালেও এখনও কেন্দ্রের তুলনায় রাজ্যের কর্মীরা ৩১ শতাংশ কম পান।

বর্ধিত হারে ডিএ দেওয়ার দাবিতেই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন। যদিও মে মাসের রায়ের পরই তার রূপায়ণ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের আশঙ্কা ছিল, আদালতের নির্দেশিত হারে সরকারি কর্মীদের ডিএ দিতে অসুবিধায় পড়তে পারে রাজ্য সরকার।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.