×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

Assembly PAC: বিধানসভার পিএসি চেয়ারম্যান পদ কে পাবে, জল্পনা শুরু

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১০ জুন ২০২১ ১৪:১৮

রাজ্য বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির (পিএসি) চেয়ারম্যান পদটি রেওয়াজ মেনে বিরোধী বিজেপি-কে দেওয়া হবে? রাজ্য রাজনীতিতে আবার জল্পনা। অনেকের মতে, শাসক তৃণমূল এবং বিরোধী বিজেপি-র মধ্যে একদফা টানাপড়েন হতে চলেছে। সম্প্রতি তৃণমূল এবং বিজেপি পরিষদীয় দলের প্রতিনিধিদের মধ্যে আলোচনায় স্থির হয়েছিল, রেওয়াজ মেনে পিএসি-র চেয়ারম্যান পদটি দেওয়া হবে বিরোধী দলকে। কিন্তু সম্প্রতি শাসকশিবির থেকে সেই সমীকরণ বদলের ইঙ্গিত মিলছে। তৃণমূল পরিষদীয় দল সূত্রে খবর, পিএসি-র চেয়ারম্যান পদটি না-ও ছাড়া হতে পারে বিজেপি-কে। পরিষদয়ী মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ওই বিষয়ে ‘হ্যা’ বা ‘না’ কিছুই বলেননি। বৃহস্পতিবার ওই বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে তিনি শুধু বলেন, ‘‘পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান পদ কে পাবেন, তা ঠিক করেন বিধানসভার স্পিকার। এক্ষেত্রে আমাদের কিছু বলার নেই।’’

আইন অনুযায়ী পরিষদয়ী মন্ত্রী ঠিকই বলেছেন। পিএসি-র চেযারম্যানের পদ বিরোধী দলকে দিতেই হবে— এমন কোনও আইনি বাধ্যবাধকতা নেই। পুরোটাই হয়ে আসছে রীতি এবং রেওয়াজের উপর ভিত্তি করে। দেশের সংসদীয় এবং রাজ্যের পরিষদীয় গণতন্ত্রে শাসক ও বিরোধীপক্ষের পরিষদীয় দলের আলোচনার ভিত্তিতে পিএসি-র চেয়ারম্যান পদটি বিরোধীপক্ষকে দেওয়া হয়ে থাকে। ঠিক যে ভাবে লোকসভায় পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী। ন্তু কেন্দ্রের শাসক বিজেপি ওই রেওয়াজ না মানলে অন্তত আইনগত দিক থেকে বিরোধী কংগ্রেসের কিছু বলার ছিল না। যেমন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভাতেও শাসক তৃণমূল যদি মনে করে, তারা বিরোধী বিজেপি-কে পদটি ছাড়বে না, তা হলে বিজেপি-রও কিছু করণীয় থাকবে না।

বিধানসভা স্পিকার যদি মনে করেন, নিজের বিবেচনার ভিত্তিতে ওই পদটি তিনি শাসকদলক দিতে পারেন। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের বিধানসভায় স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের বিবেচনা প্রয়োগ করেই তৎকালীন কংগ্রেস বিধায়ক মানস ভুঁইয়াকে পিএসি-র চেয়ারম্যান পদটি দিয়েছিলেন। যদিও বিরোধী বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস জোটের পক্ষ ওই পদের জন্য তৎকালীন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীর নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল। বিরোধীদের সেই প্রস্তাব না মেনে স্পিকার পিএসি-র চেয়ারম্যান করেন মানসকে। ঘটনাচক্রে, মানসও তখন বিরোধী শিবিরেরই বিধায়ক ছিলেন। কিন্তু এবার বিরোধী বিজেপি-র কোনও বিধায়ক নন, পদটি পেতে পারেন শাসকদলের কোনও বিধায়কই। বিধানসভার একটি সূত্রের দাবি, স্পিকার নিজের বিবেচনা প্রয়োগ করে শাসকদলের কোনও প্রতিনিধিকে পিএসি-র চেয়ারম্যান হিসেবে মনোনীত করতে পারেন। বিজেপি পরিষদীয় দলের মুখ্যসচেতক মনোজ টিগ্গা জানিয়েছেন, তেমন হলে যথাসময়ে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিরোধী দলনেতাই নেবেন।

Advertisement

প্রসঙ্গত, বিধানসভার মোট ৪১টি কমিটির মধ্যে গেরুয়া শিবির চেয়েছিল ১৪টি কমিটির চেয়ারম্যান পদ। দু’পক্ষের মধ্যে আলাপ-আলোচনায় পিএসসি-সহ ১০টি কমিটির চেয়ারম্যান পদ বিরোধীদের দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল বলে খবর। কিন্তু পিএসি-র চেয়ারম্যান পদটি বিরোধীদের বদলে শাসকদল পেলে বাকি কমিটিগুলি নিয়েও আবার আলোচনার সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে।

Advertisement