Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

২৩ ব্রিটিশ কূটনীতিককে পাল্টা বহিষ্কার করল রাশিয়া

শনিবার ২৩ জন ব্রিটিশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করল রাশিয়া। জানানো হয়েছে, এক সপ্তাহের মধ্যে রাশিয়া ছেড়ে চলে যেতে হবে তাঁদের।

সংবাদ সংস্থা
মস্কো ১৮ মার্চ ২০১৮ ০৩:২১

শোধবোধ। ২৩-এর বদলে ২৩।

গত বুধবার স্ক্রিপাল-কাণ্ডে ২৩ জন রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্রিটেন। ক্রেমলিন তখনই জানিয়েছিল, এর উপযুক্ত জবাব দেবে তারা। সেই ‘জবাব’ এল আজই। শনিবার ২৩ জন ব্রিটিশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করল রাশিয়া। জানানো হয়েছে, এক সপ্তাহের মধ্যে রাশিয়া ছেড়ে চলে যেতে হবে তাঁদের।

সম্প্রতি ব্রিটেন অভিযোগ তোলে, রাশিয়ায় তাদের দেশের হয়ে কাজ করা প্রাক্তন চর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তাঁর মেয়ে জুলিয়া স্ক্রিপালকে নার্ভ এজেন্ট দিয়ে মেরে ফেলার চক্রান্ত করা হয়েছিল। এর পিছনে রাশিয়ার হাত আছে, প্রথম থেকেই বলে আসছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। এর মধ্যে আরও এক ধাপ এগিয়ে ব্রিটিশ বিদেশমন্ত্রী বরিস জনসন আবার সরাসরি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দিকে আঙুল তোলেন। এর পরে ব্রিটেন ২৩ জন রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করতেই রাশিয়া জানিয়ে দিয়েছিল, ‘ভেবেচিন্তে’ যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Advertisement

শনিবার সকালে মস্কোর ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত লরি ব্রিস্টোকে ডেকে পাঠানো হয় রুশ বিদেশ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে। সেন্ট্রাল মস্কোর ‘স্ট্যালিন’ সদর দফতরে বৈঠক হয়। সেখানেই ব্রিস্টোকে জানানো হয় রাশিয়ার সিদ্ধান্তের কথা। শুধু ২৩ জন ব্রিটিশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করাই নয়, ‘ব্রিটিশ কাউন্সিল’-এর যাবতীয় কাজকর্মও বন্ধ করে দিয়েছে মস্কো। এই সংস্থাটিই দু’দেশের সাংস্কৃতিক যোগসূত্রের কান্ডারি হিসেবে কাজ করে। সেন্ট পিটার্সবার্গে কনস্যুলেট চালানোর জন্য ব্রিটেনের সঙ্গে যে চুক্তিপত্র ছিল, এ দিন তা-ও বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

রুশ বিদেশ মন্ত্রকের বক্তব্য, মস্কো যা করেছে, সবটাই ব্রিটেনের ‘প্ররোচনার’ পাল্টা জবাব। তাদের আরও দাবি, রাশিয়ার বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ ছাড়াই ‘ভিত্তিহীন’ অভিযোগ আনছে ব্রিটেন। যদিও এ দিনের বৈঠকের পরে ব্রিস্টো সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘যে রাসায়নিক অস্ত্র দিয়ে স্ক্রিপাল ও তাঁর মেয়েকে খুন করার চেষ্টা করা হয়েছিল, সেগুলো রাশিয়াতেই তৈরি। কী ভাবে ওই রাসায়নিক অর্থাৎ নার্ভ এজেন্ট ব্রিটেনে পৌঁছল, তার কোনও ব্যাখ্যা দিতে পারেনি মস্কো। নিজেদের দেশকে রক্ষা করার জন্য যা যা প্রয়োজন, ভবিষ্যতেও ব্রিটেন সেটাই করবে।’’

আরও পড়ুন

Advertisement