Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আচমকা গুলি চলল ইংল্যান্ডের রাস্তায়, বন্দুকধারী-সহ মৃত ছয়

গুলির আঘাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় দুই মহিলা এবং ১০ বছরের একটি শিশু-সহ চারজনের। পরে গুরুতর জখম এক মহিলার মৃত্যু হয় হাসপাতালে।

সংবাদ সংস্থা
লন্ডন ১৪ অগস্ট ২০২১ ০০:০২
এলাকাটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। প্লে মাউথের কি হ্যামে।

এলাকাটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। প্লে মাউথের কি হ্যামে।
ছবি সংগৃহীত

বন্দুকবাজের গুলিতে পাঁচজনের মৃত্যু হল ইংল্যান্ডের প্লেমাউথ শহরে। দক্ষিণ পশ্চিম ইংল্যান্ডের এই শহরে ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে। এলোপাথাড়ি গুলি চালানোর পর বন্দুকবাজ নিজে আত্মঘাতী হয়। যদিও এই ঘটনার সঙ্গে সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের কোনও যোগ নেই বলেই মনে করছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবারের ঘটনাটি ঘটে প্লে মাউথশহরের কি হ্যাম এলাকায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, প্রথমে একটি বাড়ির দরজা ভেঙে ঢুকে পড়ে গুলি চালাতে শুরু করে ওই বন্দুকবাজ। পরে রাস্তায় নেমেও গুলি চালাতে দেখা যায় তাকে। গুলির আঘাতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় দুই মহিলা এবং ১০ বছরের একটি শিশু-সহ চারজনের। পরে গুরুতর জখম এক মহিলার মৃত্যু হয় হাসপাতালে।

ঘটনার তদন্তকারী পুলিশ জানিয়েছে, ওই বন্দুকবাজের নাম জেক ডেভিসন। প্লেমাউথেরই বাসিন্দা সে। বৃহস্পতিবার রাতে শ্যুটআউটের সময় সম্ভবত জেক নিজেকেই নিজে গুলি করে। যদিও বন্দুকবাজের হামলার কারণ জানা যায়নি। তবে এই ঘটনায় জেক ছাড়া আর কেউ জড়িত ছিল না বলেই নিশ্চিত পুলিশ। তারা জানিয়েছে, এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দ্বিতীয় কোনও ব্যাক্তির খোঁজ করছে না তারা। এর সঙ্গে কোনও সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের যোগ নেই বলেও প্রাথমিক অনুমান তদন্তকারীদের।

প্লেমাউথের ঘটনায় এদিন উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। টুইটারে বরিস লিখেছেন, ‘‘প্লে মাউথের ঘটনায় আক্রান্তদের পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা জানাই। জরুরি পরিষেবা প্রদানকারীদের তাদের দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করার জন্য ধন্যবাদ।’’

ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্র সচিব প্রীতি পটেল টুইটারে লেখেন, ‘প্লেমাউথের ঘটনা মারাত্মক। স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুরোধ করব আপনারা শান্ত থাকুন জরুরি পরিষেবা প্রদানকারীদের নিজেদের কাজ করতে দিন।’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement