Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Baltimore

৭ সপ্তাহ পার, দুর্ভোগেই দালির ২১ জন নাবিক

গোটা ঘটনায় মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে আগেই। এ বার নাবিকদের দুঃসহ পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন অলাভজনক এক সংস্থার শীর্ষ আধিকারিক জোসুয়া মেসিক।

—প্রতীকী চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
বল্টিমোর শেষ আপডেট: ১৮ মে ২০২৪ ০৮:১৬
Share: Save:

কুড়ি জন ভারতীয়-সহ মোট ২১ জন নাবিক এখনও আটকে জাহাজেই। ৫০ দিন পেরিয়ে গেলেও মেলেনি মুক্তি। গত ২৬ মার্চ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আমেরিকার বল্টিমোরে ফ্রান্সিস স্কট কি সেতুতে ধাক্কা মেরেছিল পণ্যবাহী জাহাজ এম ভি দালি। তার জেরে প্যাটাপস্কো নদীর উপরে টুকরো টুকরো হয়ে ভেঙে পড়ে সেতুটি। তদন্তে নামে আমেরিকার গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। তাদের নির্দেশেই জাহাজে আটকে রাখা হয় নাবিকদের। কেড়ে নেওয়া হয়েছে ফোনও। তার জেরেই গুরুতর সমস্যায় ওই নাবিকেরা।

গোটা ঘটনায় মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে আগেই। এ বার নাবিকদের দুঃসহ পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন অলাভজনক এক সংস্থার শীর্ষ আধিকারিক জোসুয়া মেসিক। তিনি জানান, জাহাজে আটকে পড়া নাবিকেরা অনলাইন ব্যাঙ্কিংয়ের সুযোগ পাচ্ছেন না। বাড়ির দৈনন্দিন খরচের বিলও পরিশোধ করতে পারছেন না। সন্তানদের ছবিটুকু দেখার সুযোগও কেড়ে নেওয়া হয়েছে। গোটা পৃথিবী থেকে কার্যত বিচ্ছিন্ন ওই ২১ জন। এফবিআইয়ের কড়া পদক্ষেপ নিয়ে ক্ষোভ জানান নাবিকদের পরিজন। কবে প্রিয়জন মুক্তি পাবেন, সেই নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন কাটাচ্ছেন তাঁরা।

আটকে থাকা নাবিকদের পরিস্থিতি তুলে নাবিকদের দু’টি সংগঠন জানায়, মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন নাবিকেরা। অবিলম্বে মোবাইল ফোন ফিরিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে নাবিকদের সংগঠন। তাদের প্রশ্ন, যত দিন তদন্ত চলবে, তত দিন কি দুর্ভোগে কাটাবেন নাবিকেরা?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE