Advertisement
২০ জুলাই ২০২৪
British Prime Minister

Rishi Sunak: খেটে খাওয়া মানুষদের সঙ্গে বন্ধুত্ব নেই! ঋষি সুনকের বক্তব্য শুনে থ ব্রিটেন

বরিস জনসনের পদত্যাগের পর ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে নিজেকে তুলে ধরছেন ঋষি সুনক। ইতিমধ্যেই প্রচারও শুরু করে দিয়েছেন তিনি।

ঋষি সুনক।

ঋষি সুনক।

সংবাদ সংস্থা
লন্ডন শেষ আপডেট: ১০ জুলাই ২০২২ ১৩:১৪
Share: Save:

এই মানুষটিই কি দেশের প্রধানমন্ত্রী হতে চাইছেন! ব্রিটেনের সর্বস্তরের মানুষের প্রতিনিধি হতে চাইছেন? ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর দৌড়ে শামিল সদ্য চল্লিশ পেরোনো ঋষি সুনকের কম বয়সের একটি বক্তব্য শুনে থ ব্রিটেনবাসীরা। ২১ বছরের তরুণ ঋষিকে সেখানে বলতে শোনা যাচ্ছে, তিনি মধ্যবিত্ত হতে পারেন, তবে সমাজের অভিজাত বংশোদ্ভূতদের অনেকেই তাঁর বন্ধু। সমাজের উচ্চবিত্ত, উঁচু স্তরে থাকা বহু মানুষও তাঁর ভাল বন্ধু। তবে খেটে খাওয়া মানুষদের কেউ তাঁর বন্ধু-স্থানীয় নন।

২১ বছর আগে সংবাদ সংস্থা বিবিসি-র একটি তথ্যচিত্র ‘মিডল ক্লাস— দেয়ার রাইজ অ্যান্ড স্প্রল’ -একটি সাক্ষাৎকার নিয়ছিলেন ঋষির। ওই ছবিরই ভিডিয়ো ক্লিপে ঋষি বলেন, ‘‘সমাজের সবস্তরে আমার বন্ধু আছে, অভিজাত, উচ্চবিত্ত, খেটে খাওয়া... ও নাহ, খেটে খাওয়া মানুষেরা নন।’’ তরুণ ঋষি ওই সাক্ষাৎকারে স্পষ্ট করে দিয়েছেন সমাজের নীচু স্তরের সঙ্গে সংসর্গ রাখা পছন্দ নয় তাঁর। সেই ঋষিই অবশ্য ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে নেমে বলেছেন, ‘‘আমার ঠাকুমাকে এই দেশ দু’টি ইচ্ছেডানা দিয়েছিল। মধ্যবিত্ত আমাকেও স্বপ্ন দেখতে সাহায্য করেছিল। আমাকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন করলে, আমি এ দেশে নিজের খুঁটি বাঁধতে চাওয়া মানুষজনকে একই সুবিধা দেব।’’

ঋষির বক্তব্যের এই দ্বৈততা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন ব্রিটেনের নাগরিকরা। তাঁরা জানতে চাইছেন যিনি তরুণ বয়সে এত জোর দিয়ে নীচু স্তরের মানুষ সম্পর্কে নিজের অপছন্দের কথা স্পষ্ট করেন। তাঁর বিশ্বস্ততা নিয়ে প্রশ্ন থেকে যায়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE