Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২

হ্রদে পড়ল বিমান, নৌকায় চড়ে পাড়ে এলেন যাত্রীরা

৩০ জন যাত্রী, ১২ বিমানকর্মী-সহ এয়ার নিউগিনি বোয়িং বিমানটিতে মোট ৪৭ জন ছিলেন। উড়ান সংস্থাটি জানিয়েছে, প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপরাষ্ট্র মাইক্রোনেসিয়ায় পোনপেই দ্বীপ থেকে পাপুয়া নিউগিনির রাজধানী পোর্ট মোর্সবিতে যাচ্ছিল বিমানটি।

জলে ভাসছে বিমান। নৌকায় উদ্ধার যাত্রীদের। এএফপি

জলে ভাসছে বিমান। নৌকায় উদ্ধার যাত্রীদের। এএফপি

সংবাদ সংস্থা
ওয়েলিংটন শেষ আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৩:২৩
Share: Save:

রানওয়ের বদলে হ্রদে গিয়ে নামল বিমান। সাঁতরে ও নৌকায় করে পাড়ে পৌঁছে কোনও মতে প্রাণে বাঁচলেন যাত্রীরা। শুক্রবার সকালে প্রশান্ত মহাসাগরের প্রত্যন্ত ওয়েনো দ্বীপের বিমানবন্দরে নামতে গিয়ে বিপত্তির মুখে পড়ে এয়ার নিউগিনি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ বিমানটি। গুরুতর আহত চার যাত্রী।

Advertisement

৩০ জন যাত্রী, ১২ বিমানকর্মী-সহ এয়ার নিউগিনি বোয়িং বিমানটিতে মোট ৪৭ জন ছিলেন। উড়ান সংস্থাটি জানিয়েছে, প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপরাষ্ট্র মাইক্রোনেসিয়ায় পোনপেই দ্বীপ থেকে পাপুয়া নিউগিনির রাজধানী পোর্ট মোর্সবিতে যাচ্ছিল বিমানটি। পথে ওয়েনো দ্বীপের বিমানবন্দরে নামতে গিয়েই ঘটে বিপত্তি।

সংস্থাটি জানিয়েছে, শুরুতে স্বাভাবিকভাবেই অবতরণের জন্য তৈরি হয়েছিল বিমানটি। হঠাৎ আবহাওয়া অত্যন্ত খারাপ হয়ে যায়। প্রচন্ড বৃষ্টি আসায় কমে যায় দৃশ্যমানতা। যার জেরে রানওয়ের বদলে বিমানবন্দর লাগোয়া একটি হ্রদে গিয়ে নামে বিমানটি। কয়েক মিনিটের মধ্যেই নৌকা নিয়ে উদ্ধারে হাজির হন স্থানীয় মৎস্যজীবীরা। তাঁরা জানিয়েছেন, বিমানের ভিতরে জল ঢুকলেও বেশ কিছু ক্ষণ ভেসে ছিল এটি। সব যাত্রীদের উদ্ধারের পরেই ধীরে ধীরে ডুবতে শুরু করে এটি। বেশ কয়েক জন যাত্রী সাঁতরেও পাড়ে ফেরেন।

দেখুন সেই ভিডিয়ো

Advertisement

উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরীয় বাকি দ্বীপগুলির মতোই ওয়েনো দ্বীপের রানওয়েটি অপেক্ষাকৃত ছোট এবং তিন দিক থেকে জলে ঘেরা। এক যাত্রীর কথায়, জল ঢুকে তাঁদের কোমর পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিল। আপৎকালীন দরজা দিয়ে কোনও মতে বেরিয়ে আসেন তাঁরা। বিল জেনেস নামে ওই যাত্রী বলেছেন, ‘‘প্রথমে অবাস্তব মনে হচ্ছিল। আমার বিশ্বাসই হয়নি। তার পরেই দেখি বিমানের পাশে একটা ফুটো দিয়ে ভিতরে জল ঢুকছে।’’ ভিডিয়ো ফুটেজে দেখা গিয়েছে, আধ-ডোবা বিমানটিকে ঘিরে রয়েছে ছোট ছোট মাছ ধরার নৌকা। এক উদ্ধারকারী জানিয়েছেন, রানওয়ে ছোঁয়ার ৫০০ মিটার আগেই অবতরণ করে বিমানটি। তাঁর কথায়, ‘‘দরজা খোলা মাত্র সব যাত্রীরা বাইরে আসার জন্য ছটফট শুরু করে। আমাদের কাছে ২০টা নৌকা ছিল। প্রত্যেককে উদ্ধার সম্ভব হয়েছে। ভাগ্যিস ঘটনাটি সকালে ঘটেছিল। তাই সঙ্গে সঙ্গে আমাদের চোখে পড়ে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.