×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘ভয়ানক বিভাজনকারী’, সিএএ নিয়ে এ বার সরব ইউরোপীয় ইউনিয়ন

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৬ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:১০
সিএএ-র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। ছবি: পিটিআই।

সিএএ-র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। ছবি: পিটিআই।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে এ বার সরব হল ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। সিএএ-কে ‘বৈষম্যমূলক’ এবং ‘ভয়ানক বিভাজনকারী’ তকমা দিয়ে প্রস্তাব পেশ করল ইইউ-এর সোশ্যালিস্ট অ্যান্ড ডেমোক্র্যাটস গ্রুপ (এস অ্যান্ড ডি)। ২৪টি দেশের সোশ্যাল অ্যান্ড ডেমোক্র্যাট গ্রুপের ১৫৪ জন সদস্যের সমর্থনে এই প্রস্তাব পেশ হয়েছে। আগামী ২৯ জানুয়ারি এ বিষয়ে চর্চা হতে পারে ইইউ-এর পার্লামেন্টে। ভোটাভুটি হবে ৩০ জানুয়ারি।

ইইউ-এর সদস্যরা সিএএ এবং এনআরসি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। সেই সঙ্গে তারা আশঙ্কাও প্রকাশ করেছে, ভারত সরকারের এই নীতির কারণে বহু মুসলিম নাগরিককে দেশছাড়া হতে হবে। শুধু তাই নয়, সিএএ-র প্রতিবাদীদের বিরুদ্ধে ভারত সরকার যে পদক্ষেপ করেছে তারও তীব্র নিন্দা করেছে এস অ্যান্ড ডি গ্রুপ।

জাতি-বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে সব নাগরিকের অধিকার রক্ষায় আন্তর্জাতিক আইন রয়েছে। সেই আইনের কথা যেন ভারত মাথায় রাখে। পেশ হওয়া ওই প্রস্তাবে ভারত সরকারকে এটাও মনে করিয়ে দিতে চেয়েছেন সদস্যরা। শুধু তাই নয়, সিএএ-র বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসা এবং এ ব্যাপারে তাঁদের দাবি শোনার জন্য ভারত সরকারকে আর্জি জানাতে চলেছে ইইউ, সূত্রের খবর অন্তত তেমনটাই। গত ৫ জানুয়ারি জেএনএউতে পড়ুয়াদের উপর হামলার বিষয়টিও তুলে ধরা হয়েছে ওই প্রস্তাবে।

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘লড়াইয়ে অহিংসার পথ ভুললে চলবে না’, প্রজাতন্ত্র দিবসে দেশবাসীকে মনে করিয়ে দিলেন রাষ্ট্রপতি

আরও পড়ুন: প্রজাতন্ত্রের রাজপথে এ বার সুজাতা, সীমা, তানিয়াদের রাজ

ইইউ-এর পাশাপাশি সিএএ নিয়ে সরব হয়েছে আমেরিকাও। দুই কক্ষেই সিএএ-র বিরুদ্ধে প্রস্তাব পেশ হয়েছে। তবে ভোটাভুটির জন্য সেনেটে বিষয়টি উত্থাপিত হয়নি। এই আইন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি)-এর সদস্যরাও।



Tags:
CAA European Unionসিএএইউরোপীয় ইউনিয়ন

Advertisement