Advertisement
১৭ জুন ২০২৪
Westoennen

চকোলেটে ঢেকে গেল জার্মানির এই শহরের রাস্তা!

জার্মানির ওয়েস্টোনেন শহরের স্থানীয় একটি চকোলেট কারখানার স্টোরেজ ট্যাঙ্ক থেকে গলন্ত চকোলেট বেরিয়ে আসে। পরিমাণে তা এতটাই বেশি ছিল যে, তা ঢেকে ফেলে শহরের রাস্তা। কোনও একটি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানানো হয়।

এভাবেই ঢেকে যায় ওই শহরের রাস্তা। ছবি: টুইটার

এভাবেই ঢেকে যায় ওই শহরের রাস্তা। ছবি: টুইটার

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৫:৫১
Share: Save:

দুর্যোগ বা দুর্ঘটনা তো ঘটেই থাকে। বেশির ভাগ সময় তা দুঃখের বা হয়রানির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু ‘মিষ্টি’ দুর্ঘটনার কথা খুব একটা শুনেছেন কি? সেই রকমই একটি ঘটনা সম্প্রতি ঘটল জার্মানির রাস্তায়।

এ যেন ক্রিসমাসের আগেই দেদার ‘মিষ্টি’ বিলানোর মতো ব্যাপার! এবং তা দেখা গেল জার্মানিতে। সম্প্রতি জার্মানির ওয়েস্টোনেন শহরের রাস্তা ঢেকে যায় গলিত চকোলেটে! হ্যাঁ, সেই চকোলেট, যার নাম শুনলেই জিভে কিছু একটা হতে শুরু করে। কিন্তু ঠিক কী হয়েছিল ঘটনাটা?

জানা গিয়েছে, জার্মানির ওয়েস্টোনেন শহরের স্থানীয় একটি চকোলেট কারখানার স্টোরেজ ট্যাঙ্ক লিক করে সেখান থেকে প্রচুর পরিমাণে গলন্ত চকোলেট বেরিয়ে আসে। পরিমাণে তা এতটাই বেশি ছিল যে, তা ঢেকে ফেলে শহরের গোটা একটা রাস্তা। কোনও একটি যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানানো হয়।

আরও পড়ুন: প্রেতাত্মার সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে, তারপর ডিভোর্সও!

সঙ্গে সঙ্গেই আসে দমকল বাহিনী। ঘন্টা দু’য়েক বন্ধ রাখা হয় এলাকার রাস্তা। রাস্তা থেকে চকোলেট সরিয়ে তা পুনরায় চলাফেরার যোগ্য করে তুলতে বেশ বেগ পেতে হয় বাহিনীকে। এমনকি এক সময় রাস্তা পরিষ্কার করবার জন্য এই ব্যাপারে বিশেষজ্ঞ একটি সংস্থাকেও ডেকে আনতে হয়।

আরও পড়ুন: গাড়ির মধ্যে ঘুমিয়ে চালক, ডেকে দিতেই...

ঘটনাটি কয়েক দিন আগে ঘটলেও, সম্প্রতি সেই চকোলেটে ভরা রাস্তার ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। টুইটারে লেখা হয়েছে, ‘আমাদের সকলের মিলিত স্বপ্ন কি এ ভাবেই সত্যি হয়ে গেল?’ পোস্ট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়েছে তা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Westoennen Germany Chocolate Accident
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE