Advertisement
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
US Supreme court

বৈষম্য-বিরোধী আইনের বিরুদ্ধে শুনানি শুরু

রূপান্তরকামীদের সঙ্গে কোনও রকমের বিভেদমূলক আচরণ করা যাবে না— সম্প্রতি আমেরিকার এই আইনকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন ডেনভারের এক ওয়েব ডিজ়াইনার।

ছবি রয়টার্স।

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন শেষ আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ০৮:২২
Share: Save:

বাক্‌স্বাধীনতা এবং বৈষম্য বিরোধিতা— এই দুই অধিকারের মুখোমুখি লড়াইয়ে সরগরম হয়ে উঠল আমেরিকান সুপ্রিম কোর্ট।

Advertisement

রূপান্তরকামীদের সঙ্গে কোনও রকমের বিভেদমূলক আচরণ করা যাবে না— সম্প্রতি আমেরিকার এই আইনকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন ডেনভারের এক ওয়েব ডিজ়াইনার। ওই ব্যবসায়ীর দাবি, এক লিঙ্গের দুই মানুষের বিয়ের বিষয়টি তিনি একেবারেই সমর্থন করেন না। এবং সে কারণেই তিনি এই ধরনের কোনও অনুষ্ঠানের বরাত নেওয়া থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখতে চান। কিন্তু আইনের মারপ্যাঁচ তাঁকে সেই স্বাধীনতা দিচ্ছে না।

সোমবার সুপ্রিম কোর্টে প্রায় ঘণ্টা দুয়েক ধরে শুনানি চলে ডেনভারের ওই ব্যবসায়ী লরি স্মিথের করা এই মামলার। কলোরাডোর আইন অনুযায়ী, যৌন পরিচয়ের ভিত্তিতে কারও সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ বেআইনি। ফলে প্রাদেশিক আদালতের রায় স্মিথের বিপক্ষে যাওয়ায় সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন তিনি। আদালতে করা তাঁর আবেদনে স্মিথ জানান, কলোরাডোর বৈষম্য-বিরোধী আইন শিল্পীদের বাক্‌স্বাধীনতার অধিকারের পরিপন্থী। কারণ তাঁরা যাতে বিশ্বাস করেন না এমন বার্তা তাঁদের কাজের মাধ্যমে প্রকাশ করার বিষয়টি চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে দিনে পর দিন। যার অন্যতম রাস্তা হল এই বৈষম্য-বিরোধী আইন।

স্মিথের মামলাটি এখনও বিচারাধীন। তবে অন্দরের গুঞ্জন, সুপ্রিম কোর্টে কনজ়ার্ভেটিভ মনোভাপন্নের পাল্লা ভারী। ফলে প্রাদেশিক আদালতে হার হলেও এ বার ওই ওয়েব ডিজ়াইনারের জয় প্রায় নিশ্চিত বলেই মনে করছেন অনেকে।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.