Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

৬ শিশু-সহ ৫৯ যাত্রী নিয়ে মাঝ আকাশে উধাও বিমান, ধ্বংসাবশেষ নিয়ে ধন্দ

সংবাদ সংস্থা
জাকার্তা ০৯ জানুয়ারি ২০২১ ১৭:০২
উড়ানের কয়েক মিনিট পরই বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। —প্রতীকী চিত্র।

উড়ানের কয়েক মিনিট পরই বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। —প্রতীকী চিত্র।

নিখোঁজ বিমানের খোঁজে তল্লাশি চলাকালীনই ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার হল ইন্দোনেশিয়ায়। তবে সেটি নিখোঁজ বিমানেরই ধ্বংসাবশেষ কি না, সে ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। যদিও মাঝ আকাশে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া বিমানটিও ভেঙে পড়ে থাকতে পারে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মাঝ আকাশ নিখোঁজ ইন্দোনেশিয়ার একটি বিমান। বিমানে সব মিলিয়ে ৫৯ জন যাত্রী ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। ছিলেন বিমানকর্মীও।,শনিবার দুপুরে জাকার্তার সোকরানো-হাত্তা বিমানবন্দর থেকে পোনতিয়ানাকের উদ্দেশে রওনা দেয়। কিন্তু উড়ানের ৪ মিনিটের মধ্যেই বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার দুপুরে স্থানীয় সময় ১টা বেজে ৪০ মিনিট নাগাদ শ্রীবিজয়া এয়ারলাইনের এসজে ১৮২ নম্বর যাত্রীবাহী ওই বিমানটি ওড়ে। তার কয়েক চার মিনিটের মাথায় বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

Advertisement

ফ্লাইট ট্র্যাকার ওয়েবসাইট FlightRadar24 জানিয়েছে, উড়ানের পর সোজা ১০ হাজার ৯০০ ফুট উপরে উঠে যায় বিমানটি। কিন্তু মাত্র ১ মিনিটের মধ্যে সেখান থেকে ১০ হাজার ফুট উচ্চতায় নেমে আসে বিমানটি। তাই বিমানটি ভেঙে পড়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।


মাটি থেকে ১০ হাজার ফুট উচ্চতায় থাকাকালীনই বিমানটির সঙ্গে শেষ বার যোগাযোগ করতে পেরেছিল কন্ট্রোল রুম। তার পর আর হদিশ মেলেনি। ৬ শিশু-সহ বিমানে মোট ৫৯ জন যাত্রী ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। তাদের মধ্যে ছিল একটি সদ্যোজাত শিশুও। বিমানটির খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।


স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, নিখোঁজ বিমানটি বোয়িং ৭৩৭-৫০০ সিরিজের। ২৬ বছর ধরে যাত্রী পরিবহণে সেটি ব্যবহার করা হচ্ছিল।

আরও পড়ুন

Advertisement