Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সার্ক সম্মেলনে মোদীকে আমন্ত্রণ জানাবে পাকিস্তান, করতারপুর করিডরের সূচনার আগে ঘোষণা ইসলামাবাদের

সংবাদ সংস্থা
ইসলামাবাদ ও নয়াদিল্লি ২৭ নভেম্বর ২০১৮ ২০:১৪
নরেন্দ্র মোদী ও ইমরান খান। —ফাইল চিত্র

নরেন্দ্র মোদী ও ইমরান খান। —ফাইল চিত্র

ভারত বয়কট করায় ২০১৬-তে গত বছর কার্যত ভেস্তে গিয়েছিল। শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, ভুটান, মলদ্বীপ, আফগানিস্তানও ভারতের পথেই হেঁটে সার্ক (সাউথ এশিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর রিজিওনাল কো-অপারেশন) সম্মেলনে যোগ দেয়নি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এবছর ফের সেই সার্ক সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে পাকিস্তান। পাক বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র মহম্মদ ফয়সাল জানান, সার্ক সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়েই ইমরান খান বলেছিলেন, ভারত এক পা এগোলে পাকিস্তান দু’কদম এগিয়ে যাবে। পাক প্রধানমন্ত্রীর এই মন্তব্য উদ্ধৃত করে ইসলামাবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করে ফয়সাল বলেন, সার্ক সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে পাকিস্তানে আমন্ত্রণ জানাবে পাকিস্তান।

করতারপুর করিডরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানের আগের সন্ধ্যায় পাকিস্তানের এই আমন্ত্রণ নিয়ে ভারতের তরফ থেকে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া না পাওয়া গেলেও সূত্রের খবর, এখনই সব পথ বন্ধ করে দিতে চাইছে না নয়াদিল্লি। তবে এখনই সরাসরি সম্মতি দিয়ে দিতেও চাইছে না সাউথ ব্লক। বরং ইসলামাবাদের মনোভাব এবং সামগ্রিক পরিস্থিতির উপর নজর রেখে শেষ মুহূর্তে সিদ্ধান্ত জানানোর পথেই এগোচ্ছে ভারত।

Advertisement

আরও পড়ুন: পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী ২৫ সেনাবাহিনীর তালিকায় ভারত কোথায়, দেখে নিন

বুধবারই করতারপুর করিডরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন ইমরান খান। আগামী বছরের নভেম্বরেই করতারপুর সাহিব গুরুদ্বার ভ্রমণে যেতে পারবেন ভারতের পর্যটকরা। এই ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনে সুষমা স্বরাজকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি যোগ দিচ্ছেন না। যাচ্ছেন দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরসিমরত কউর বাদল এবং হরদীপ সিংহ পুরি। ক্রিকেটার তথা কংগ্রেস নেতা নভজ্যোৎ সিংহ সিধু আগেই পাকিস্তানে পৌঁছে গিয়েছেন। তার আগের দিনই ইসলামাবাদের এই ঘোষণা তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক শিবির।

প্রতি দু’বছর অন্তর সার্ক সম্মেলন হয়। ২০১৪-র কাঠমান্ডু সার্ক সম্মেলনে যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তার পর ২০১৬ সালে ইসামাবাদে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। কিন্তু তার পরই উরি সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হানার ঘটনা ঘটে। তার জেরে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ চালায় ভারত। এ নিয়ে নয়াদিল্লি-ইসলামাবাদ সম্পর্কের তিক্ততা বাড়তেই থাকে।

আরও পড়ুন: দাক্ষিণাত্য অভিযানে বিজেপির নজরে তেলঙ্গানা, ‘ফ্রেন্ডলি ম্যাচ’ খেলছে কংগ্রেস-টিআরএস, বললেন মোদী

কিন্তু পাকিস্তানে নয়া সরকার গঠনের পর ইমরানের মন্তব্যে সম্পর্কে বরফ গলার কিছুটা ইঙ্গিত মিলেছিল। সেপ্টেম্বরেই রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভার ফাঁকে ভারত-পাক বিদেশ মন্ত্রীর আলাদা বৈঠকে সম্মতি দেয় নয়াদিল্লি। কিন্তু তার আগেই জম্মু কাশ্মীর সীমান্তে এক সেনা ও তিন পুলিশ কর্মীকে খুনের অভিযোগ ওঠে পাক সেনার বিরুদ্ধে। ফলে শেষ মুহূর্তে ভারত বৈঠক বাতিল করে। এবার কর্তারপুর করিডোর ঘিরে সম্পর্কে নয়া মোড় নেওয়ার জল্পনার মধ্যেই সার্ক সম্মেলনে মোদীকে আমন্ত্রণের ঘোষণা।

(আমেরিকা থেকে চিন, ব্রিকস থেকে সার্ক- সব গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক খবর জানতে চোখ রাখুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগে।)

আরও পড়ুন

Advertisement