×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ মে ২০২১ ই-পেপার

দ্বিতীয় বিতর্ক বাতিল, ট্রাম্প তৈরি অলিন্দে

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন ১১ অক্টোবর ২০২০ ০২:১৮
ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনা সংক্রমিত হওয়ার পর থেকেই দ্বিতীয় ‘প্রেসিডেন্সিয়াল ডিবেট’ নিয়ে টালবাহানা চলছিল। হোয়াইট হাউসের দাবি, ট্রাম্প সুস্থ। কোনও ওষুধও খাচ্ছেন না এখন। কিন্তু যে হেতু তাঁর করোনা-রিপোর্ট এখনও নেগেটিভ আসেনি, তাই সরাসরি তাঁর মুখোমুখি হওয়ার ব্যাপারে নিমরাজি ছিলেন ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিতর্কসভার দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিশন নির্ধারিত ১৫ অক্টোবরের ওই বিতর্ক অনলাইন করার প্রস্তাব দিয়েছিল। ট্রাম্প আবার ‘সময়ের অপচয়’ বলে তা নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিলেন। শেষমেশ ওই বিতর্ক বাতিলই ঘোষণা করল কমিশন। এক বিবৃতিতে কমিশন জানিয়েছে, আপাতত তারা ২২ অক্টোবর তৃতীয় বিতর্কসভারই প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ট্রাম্প অনড়ই। ভোটের ঠিক মুখে ব্যাটিং করতে নেমে স্লগ ওভারের মেজাজে। তাঁর শিবির সূত্রের খবর, স্থানীয় সময়ের হিসেবে আজই হোয়াইট হাউসের ব্যালকনি থেকে বক্তৃতা দেবেন তিনি। যা শুনতে সাউথ লনে প্রায় দু’হাজার ভক্তের জমায়েত হতে পারে। ট্রাম্প-সহ সম্প্রতি হোয়াইট হাউসের অন্তত ১২ জন কর্তাব্যক্তির শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়ার পিছনে গত ২৬ সেপ্টেম্বরে এই হোয়াইট হাউসেরই একটি অনুষ্ঠানের কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। সে দিন অ্যামি ব্যারেটকে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে মনোনীত করেছিলেন প্রেসিডেন্ট। মাস্ক-ছাড়া কার্যত গা ঘেঁষাঘেঁষি করেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছিল অতিথিদের। কাল এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া প্রশ্নের উত্তরে ওই অনু্ষ্ঠানকে করোনা ‘সুপারস্প্রেডার’ বলে উল্লেখ করেছিলেন দেশের শীর্ষ স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ তথা মার্কিন কোভিড টাস্ক ফোর্সের সদস্য অ্যান্টনি ফাউচি। তা সত্ত্বেও ফের কেন হোয়াইট হাউসে একই ধরনের জমায়েতের আয়োজন হচ্ছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যদিও তারা এ বার অনেক বেশি সতর্ক থাকবে বলে দাবি করেছে হোয়াইট হাউস। অতিথিদের মাস্ক আনতে বলা হয়েছে। থাকবে প্রত্যেকের তাপমাত্রা পরীক্ষার বন্দোবস্তও।

বিতর্কসভা বাতিল হওয়ায় বাই়়েডনের প্রচার-মুখপাত্র অ্যান্ড্রু বেটস বলেন, ‘‘এ বার ভোটাররা সরাসরি প্রশ্ন করার সুযোগ পেতেন দুই প্রতিপক্ষকে। বাইডেন সে জন্য তৈরিও ছিলেন। কিন্তু লজ্জাজনক ভাবে ট্রাম্পই পিছু হটলেন।’’ ট্রাম্প শিবির আবার কমিশনকেই প“পাতের দায়ে কাঠগড়ায় তুলছে। পরিবেশ-আন্দোনকারী গ্রেটা থুনবার্গ বাইডেনকে ভোট দেওয়ার জন্য আর্জি জানিয়েছেন আমেরিকানদের প্রতি।

Advertisement
Advertisement