Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

কংগ্রেসের সমালোচনা বিজেপির

মার্কিন কংগ্রেসে কাশ্মীর প্রস্তাব, প্রশংসায় তারুর

কাশ্মীরে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে চলতি বছরেই মার্কিন কংগ্রেসের সংশ্লিষ্ট কমিটির শুনানির ফলে অস্বস্তিতে পড়েছিল ভারত।

সংবাদ সংস্থা
ওয়াশিংটন ও নয়াদিল্লি ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ০২:০২
Save
Something isn't right! Please refresh.
ছবি এএফপি।

ছবি এএফপি।

Popup Close

কাশ্মীরে রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দেওয়া, যোগাযোগের উপরে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া ও ধর্মীয় স্বাধীনতা বজায় রাখা প্রসঙ্গে ফের প্রস্তাব পেশ হল মার্কিন কংগ্রেসে। তা সমর্থন পেল ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান, দু’দলেরই। আর মার্কিন কংগ্রেসে এই উদ্যোগের প্রশংসা করে বিজেপির সমালোচনার মুখে পড়লেন কংগ্রেস নেতা শশী তারুর।

কাশ্মীরে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে চলতি বছরেই মার্কিন কংগ্রেসের সংশ্লিষ্ট কমিটির শুনানির ফলে অস্বস্তিতে পড়েছিল ভারত। ২২ নভেম্বর জম্মু-কাশ্মীরে ‘মানবাধিকার লঙ্ঘন’-এর বিরুদ্ধে কংগ্রেসে প্রস্তাব পেশ করেন সদস্য রশিদা তালিব। সেই প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট কমিটির বিবেচনাধীন। ভারতীয় কূটনৈতিক সূত্রের মতে, ওই প্রস্তাব কংগ্রেসে পেশ না-ও হতে পারে। কিন্তু গত কাল কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে ভারতীয় বংশোদ্ভূত সদস্য প্রমীলা জয়পালের প্রস্তাব নিয়ে চিন্তিত ভারতীয় কূটনীতিকেরা।

কূটনৈতিক সূত্রের মতে, জয়পালের প্রস্তাবকে রিপাবলিকান সদস্য স্টিভ ওয়াটকিন্স সমর্থন করায় ওই প্রস্তাবের গুরুত্ব বেড়েছে। প্রস্তাবে জম্মু-কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিয়ে কোনও প্রশ্ন তোলা হয়নি। এমনকি সেখানে সীমান্তপারের মদতে জঙ্গি কার্যকলাপের ফলে জম্মু-কাশ্মীরে দিল্লি যে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে সে কথাও স্বীকার করা হয়েছে। বলা হয়েছে, পুলওয়ামা হামলার জন্য দায়ী জঙ্গি ভারতীয় নাগরিক হলেও পাকিস্তানের এক নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠনের সদস্য। কিন্তু তার পরে কাশ্মীরে বহু মানুষকে বন্দি করা, সাধারণ মানুষের বিরুদ্ধে অত্যধিক বলপ্রয়োগ ও শান্তিপূর্ণ বিরোধিতার কণ্ঠরোধের বিরোধিতা করা হয়েছে। বন্দিদের মুক্তি, ইন্টারনেট ফের চালু করা, আন্তর্জাতিক

Advertisement

সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মীদের কাশ্মীরে যাওয়ার সুযোগ দেওয়ার মতো ছ’টি পদক্ষেপ করতে অনুরোধ করা হয়েছে দিল্লিকে।

আজ মার্কিন কংগ্রেসে পেশ হওয়া এই প্রস্তাবের প্রশংসা করেন কংগ্রেস নেতা শশী তারুর। তিনি টুইটারে বলেন, ‘‘মার্কিন কংগ্রেসের উদ্যোগ প্রশংসনীয়। অন্য দিকে আমাদের সংসদে গোটা শীতকালীন অধিবেশনে কাশ্মীর নিয়ে আলোচনাই হয়নি। বিষয়টি লজ্জাজনক।’’ এর পরেই তারুর তথা কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সরব হন বিজেপি সাংসদ শোভা কালান্ডরাজে ও তেজস্বী সূর্য। শোভা লেখেন, ‘‘ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মার্কিন হস্তক্ষেপের প্রশংসা করেছেন তারুর। ওঁর লজ্জা হওয়া উচিত। কিন্তু কংগ্রেস কখনওই অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে রাজনীতি করে দেশকে অপমান করতে ছাড়ে না।’’ তেজস্বী সূর্য লেখেন, ‘‘শশী তারুর অনেক সময়েই বিদেশে ভারতের পক্ষে সওয়াল করেছেন। তিনি মার্কিন হস্তক্ষেপের পক্ষে সওয়াল করায় আমি হতাশ।’’ এর পরে জবাবে তারুর বলেন, ‘‘বিজেপি ইচ্ছে করে আমার টুইটের ভুল অর্থ করছে দেখে আমি মজাই পাচ্ছি। আমাদের সংসদ এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে পারেনি, কিন্তু বিদেশের আইনসভায় তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এটা প্রশংসাযোগ্য।’’ তাঁর কটাক্ষ, ‘‘সমর্থনযোগ্য নয় এমন নীতি অনুসরণ করলেই বিজেপি জাতীয় স্বার্থের দোহাই দেয়। যেন দেশের মোট ভোটের ৩৭ শতাংশ পেয়ে তারাই দেশের স্বার্থ কী, তা স্থির করার একচেটিয়া অধিকার পেয়েছে। গণতন্ত্রে আলোচনার প্রয়োজন। আমাদের সংসদীয় আলোচনার নিয়ন্ত্রকেরা সেটাই এড়াতে চান।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement