×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

খেলনায় লেখা আপৎকালীন নম্বর দেখে মাকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়ে দিল পাঁচ বছরের শিশু

সংবাদ সংস্থা
নিউ ইয়র্ক ২৮ অগস্ট ২০২০ ২০:০৬
পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে জস। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া।

পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে জস। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া।

ছেলের খেলনা গাড়িতে লেখা একটি নম্বর মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনল এক মহিলাকে। মহিলার পাঁচ বছরের ছেলে ওই নম্বর দেখে আপৎকালীন বিভাগে ফোন করে দেয়। ইংল্যান্ডের এমনই এক ঘটনা সামনে এসেছে। আর সেই ঘটনার বিস্তারিত জানিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছে ওয়েস্ট মারসিয়া পুলিশ

ফেসবুক পোস্টে লেখা হয়েছে, গত মাসে জস নামের এই পাঁচ বছরের শিশুটি বাড়িতে তার দেড় বছরের ভাইয়ের সঙ্গে খেলছিল। হঠাৎ তাদের মা অসুস্থ হয়ে পড়েন। জস ঘাবড়ে না গিয়ে, ফোন করে এমার্জেন্সি নম্বরে। সেখান থেকে পুলিশ এবং অ্যাম্বুল্যান্স এসে পৌঁছয় তাদের বাড়ির সামনে।। সময় মতো জসের মাকে হাসপাতালে ভর্তি করার ফলে তাঁর প্রাণ বেঁচে যায় বলে জানানো হয়েছে ওয়েস্ট মারসিয়া পুলিশের ফেসবুকে।

এবার কেউ ভাবতেই পারেন, পাঁচ বছরের শিশুটি এমার্জেন্সি নম্বর পেল কী ভাবে। আসলে জসের একটি খেলনা অ্যাম্বুল্যান্স রয়েছে। তার গায়ে 'এমার্জেন্সি ১১২' লেখা রয়েছে। ১১২ নম্বরটি সে দেশের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবার এমার্জেন্সি নম্বর। সেটা দেখেই জস সাহস আর বুদ্ধি খাটিয়ে ফোন হাতে তুলে নেয়। এ ভাবে এর আগে ফোন করেনি বলে জানা গিয়েছে। ফোনের অপর প্রান্তে থাকা অপারেটরকে কোনও ভাবে বোঝাতে সক্ষম হয় তার মায়ের অবস্থা। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝতে পারেন ওই অপারেটর।

Advertisement

আরও পড়ুন: প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে সদ্যজাত-সহ গোটা পরিবারকে উদ্ধার করলেন দমকল কর্মীরা

আরও পড়ুন: পড়ে থাকা ‘পাথর’ যেন ক্ষিপ্র গতিতে ধেয়ে এসে কামড়ে ধরল হরিণের গলা!

শেষ পর্যন্ত জসের সেই ফোন কলই তার মাকে বাঁচিয়ে দেয়। আর পাঁচ বছরের এক শিশুর এমন কাজের প্রশংসা করেছে পুলিশ বিভাগও। তাদের পেজে জসের সঙ্গে পুলিশ কর্মীদের একটি ছবিও পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে জসের মাথায় আবার পুলিশের একটি টুপিও পরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

দেখুন সেই পোস্ট:


Advertisement