Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Russia Ukraine War

‘ভদকা খেয়ে মরলে কেউ খোঁজ রাখে? ছেলে তো দেশের জন্য শহিদ হয়েছে’! রুশ সেনার মাকে পুতিন

সেনাদের পরিবারের উদ্দেশে পুতিন জানান, সন্তান হারানোর যন্ত্রণা তিনি বোঝেন। মায়ের কাছে ছেলের জায়গা কেউ নিতে পারবে না। তাই রুশ সরকার সেনা পরিবারগুলির পাশে সব সময় আছে, থাকবেও।

সেনাদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে সান্ত্বনা রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের। ফাইল চিত্র।
সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০২২ ১৪:১৮
Share: Save:

দেশ কত লোক তো ভদকা খেয়ে মরছে, কিন্তু তাঁদের খোঁজ ক’জন রাখেন? কিন্তু আপনার ছেলে তো দেশের জন্য যুদ্ধ করতে গিয়ে শহিদ হয়েছে। সম্প্রতি রুশ সেনাদের ১৭টি পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সেখানে সন্তান হারানো মায়েদের উদ্দেশে এমনই মন্তব্য ছুড়ে দিয়েছেন তিনি।

Advertisement

রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে সংঘর্ষে ইতিমধ্যেই দু’পক্ষেরই হাজারো সেনার মৃত্যু হয়েছে। এ যুদ্ধ কবে থামবে, আর কত মায়ের কোল খালি হবে, এই প্রশ্ন নিয়েই প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন যুদ্ধে প্রাণ হারানো সেনাদের মায়েরা। সেখানে এক সেনার মা প্রশ্ন তুলতেই পুতিন তাঁকে সান্ত্বনা দিয়ে বলেন, “দেশে কত লোক ভদকা খেয়ে মরে যাচ্ছে। ওঁদের কেউ খোঁজ রাখেন না। কিন্তু আপনার ছেলে তো দেশের জন্য শহিদ হয়েছেন।”

সেনাদের পরিবারের উদ্দেশে পুতিন জানান, সন্তান হারানোর যন্ত্রণা তিনি বোঝেন। মায়ের কাছে ছেলের জায়গা কেউ নিতে পারবে না। তাই রুশ সরকার সেনা পরিবারগুলির পাশে সব সময় থাকবে বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট।

সম্প্রতি রুশ সেনাদের মা এবং স্ত্রীরা ভিডিয়ো তৈরি করে ফেসবুক-টুইটারে ছেড়ে দাবি করেছেন, কী ভাবে কোনও রকম প্রশিক্ষণ ছাড়াই তাঁদের যুদ্ধে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। যা নিয়ে রাশিয়ায় শোরগোল পড়ে যায়। তাঁরা পুতিনের কাছে আবেদনও জানান, এ ভাবে প্রশিক্ষণ ছাড়া তাঁদের সন্তান, স্বামীদের যুদ্ধে যেন না পাঠানো হয়। তার পরই পুতিন সেনা পরিবারগুলির সঙ্গে সাক্ষাতের সিদ্ধান্ত নেন। পরিবারগুলির অভিযোগ, হাড় হিম করা ঠান্ডায় পোশাক, খাবার জুটছে না সেনাদের। ক্রমাগত এ নিয়ে সুর চড়ছে রাশিয়ার অন্দরে। তাই তড়িঘড়ি রুশ সেনার পরিবারগুলির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে পুতিন সান্ত্বনা এবং প্রতিশ্রুতি দেওয়ার চেষ্টা করেন। সেনা পরিবারগুলির উদ্দেশে তিনি বলেন, “আমি আপনাদের সঙ্গে দেখা করে যুদ্ধের পরিস্থিতি সম্পর্কে জানানোর জন্য উৎসুক ছিলাম। আমি নিজে সেনাদের সঙ্গে প্রতি মুহূর্তে যোগাযোগ রাখছি। আমাদের সেনারা, আপনাদের ছেলেরা হিরোর মতো দেশের জন্য লড়াই করছে। কোনও রকম গুজবে কান দেবেন না।”

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.