Advertisement
২৩ জুন ২০২৪

মুক্তমনা লেখক অভিজিৎ খুনে ধৃত এক জঙ্গি

বাংলা অ্যাকাডেমির একুশে বইমেলা থেকে বেরিয়ে রাস্তায় আসার পরে ২০১৫-র ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে কয়েক জন আততায়ী আমেরিকা প্রবাসী অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে খুন করে। তাঁর স্ত্রী বন্যা আহমেদ বাধা দিতে গিয়ে চাপাতির কোপে একটি আঙুল হারান।

অভিজিৎ রায়

অভিজিৎ রায়

নিজস্ব সংবাদদাতা
ঢাকা শেষ আপডেট: ০৭ নভেম্বর ২০১৭ ০৩:১৬
Share: Save:

মুক্তমনা লেখক অভিজিৎ রায়ের অন্যতম হত্যাকারী সন্দেহে ঢাকার মহম্মদপুর এলাকা থেকে সন্দেহভাজন এক জঙ্গিকে রবিবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশের জঙ্গি-দমন শাখা। সোহেল নামে এই জঙ্গি আলসার আল ইসলামের সদস্য। পুলিশের এক কর্তার দাবি, সংগঠনের নেতা মেজর জিয়ার নির্দেশে ওই হত্যাকাণ্ডে অংশ নিয়েছিল বলে সে স্বীকার করেছে।

বাংলা অ্যাকাডেমির একুশে বইমেলা থেকে বেরিয়ে রাস্তায় আসার পরে ২০১৫-র ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে কয়েক জন আততায়ী আমেরিকা প্রবাসী অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে খুন করে। তাঁর স্ত্রী বন্যা আহমেদ বাধা দিতে গিয়ে চাপাতির কোপে একটি আঙুল হারান। অভিজিৎকে হত্যা করে বাংলাদেশে মুক্তমনা ব্লগার ও লেখকদের হত্যার পর্ব শুরু করেছিল ‘আনসারুল্লা বাংলা টিম’-এর জঙ্গিরা। পরে এই সংগঠন আনসার আল ইসলাম নাম নিয়ে নিজেদের আইএস-এর শাখা বলে দাবি করে। ২০১২-র ১৯ জানুয়ারি সেনাবাহিনীতে অভ্যুত্থানের ব্যর্থ চেষ্টার পরে পলাতক মেজর জিয়া এই আনসার আল ইসলামের মাথা। তাকে এখনও ধরা যায়নি। তবে পুলিশের দাবি, এই সব হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনাকারী জঙ্গিদের প্রায় সকলেই গ্রেফতার বা নিহত হয়েছে। অল্প কয়েক জন গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে।

তদন্তকারীরা অভিজিৎ হত্যার ভিডিও দেখে যাদের চিহ্নিত করেন, তাদের মধ্যে বছর ৩৪-এর এই আবু সিদ্দিকি সোহেল থাকলেও এতদিন ধরা যায়নি। প্রধান সন্দেহভাজন মুকুল রানা ওরফে শরিফুল গত বছর ১৯ জুন পুলিশের গুলিতে মারা যায়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE