নীরব মোদীর প্রতারণা কাণ্ড ফিকে হয়নি। এখনও উদ্ধার করা যায়নি সব টাকা। এরই মধ্যে নতুন ঋণ জালিয়াতির শিকার হল পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক (পিএনবি)। 

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কটি স্টক এক্সচেঞ্জকে জানিয়েছে, ৩,৮০০ কোটি টাকারও বেশি অঙ্কের জালিয়াতি শনাক্ত করেছে তারা। ভূষণ পাওয়ার অ্যান্ড স্টিলকে (বিপিএসএল) যা দেওয়া হয়েছিল। ব্যাঙ্কের অভিযোগ, সংস্থাটি সেই তহবিলই নয়ছয় করেছে। হিসেবের খাতায় গরমিল করেছে ঋণদাতাদের গোষ্ঠীর কাছ থেকে ধার নেওয়ার জন্য। গোটা বিষয়টি রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে জানিয়েছে পিএনবি। 

পিএনবি-র আরও দাবি, ফরেন্সিক অডিটের মাধ্যমে এই ঋণ জালিয়াতি সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছে তারা। বিপিসিএল এবং তার ডিরেক্টরদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরও করেছে সিবিআই। এই সংক্রান্ত মামলাটি এখন জাতীয় কোম্পানি আইন ট্রাইবুনালে (এনসিএলটি) রয়েছে। তা প্রায় শেষের পথে। বড় অঙ্কের ঋণ উদ্ধার হওয়ার ব্যাপারে তারা আশাবাদী বলেও জানিয়েছে ব্যাঙ্কটি। 

পিএনবিতে নীরবের জালিয়াতির অঙ্ক ছিল প্রায় ১৩,০০০ কোটি। তাদের ভুয়ো লেটার অব আন্ডারটেকিং ব্যবহার করে বিভিন্ন ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নিয়েছিল ওই হিরে ব্যবসায়ীর সংস্থা। প্রতারণা কাণ্ডে নীরবের মামা মেহুল চোক্সীও সঙ্গী হয়েছিলেন। এই মুহূর্তে নীরব লন্ডনের জেলে বন্দি। আর মেহুল নাগরিকত্ব নিয়েছেন অ্যান্টিগা-র। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে তাঁদের প্রতারণার ঘটনা সামনে আসে। তার দেড় বছরের মাথায় জানা গেল আরও এক ঋণ জালিয়াতির ঘটনা।