• নিজস্ব প্রতিবেদন 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গাড়ি কেনার আগ্রহ বাড়াতে হাতিয়ার এ বার সহজ শর্তে ধারের ব্যবস্থা

Car
প্রতীকী ছবি।

অর্থনীতির ঝিমুনিতে আগেই তাল কেটেছে গাড়ি শিল্পের। এ বছরও ব্যবসা কমার আশঙ্কা করোনার ধাক্কায়। লকডাউন ওঠার পরে হাতে টাকা থাকলেও ক’জন গাড়ি কিনবেন, তা নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই। এই অবস্থায় প্রাথমিক ভাবে আর্থিক বোঝার ভার কমলে গাড়ি কেনার আগ্রহ বাড়বে বলে মনে করছে একাধিক সংস্থা। তাই সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা করতে বিভিন্ন ব্যাঙ্কের সঙ্গে হাত মেলাচ্ছে তারা। একাংশ নিজের আর্থিক সংস্থার মাধ্যমেই এমন প্রস্তাব দিচ্ছে ক্রেতাকে। 

ব্যাঙ্কিং মহল সূত্রের খবর, এগুলি এ রকম সহজ শর্তে ধার ‘টিজ়ার লোন’ হিসেবে পরিচিত। গাড়ির চাহিদা বাড়াতে এই সুবিধা জরুরি বলে মনে করছে তারাও। তবে এ ধরনের ঋণ প্রকল্প নিষিদ্ধ না-করলেও, এর আগে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের বিষয়টি নিয়ে কিছু আপত্তি ছিল। এখন করোনা সঙ্কটের জেরে তাদের অবস্থান কিছুটা নরম হওয়ায় এমন ঋণের কথা ভাবছে গাড়ি ও ব্যাঙ্কিং মহল। সূত্রের দাবি, এ ক্ষেত্রে হয় গাড়ি কেনার সময় ক্রেতার পকেটে চাপ কমাতে গোড়ার দিকে ইএমআইয়ের অঙ্ক কম হবে, কিংবা বেশি দিন ধরে ঋণ মেটানোর সুযোগ মিলবে। গোড়ায় কিছু দিন ইএমআই স্থগিত রাখারও সুযোগ পাবেন ক্রেতা।  

মারুতি-সুজুকি, মার্সিডিজ় বেঞ্জ, হুন্ডাইয়ের মতো সংস্থা এ ধরনের নানা সুবিধা দেওয়ার কথা বলছে গ্রাহকদের। মারুতি এ জন্য এইচডিএফসি ও আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের সঙ্গে জোট বেঁধেছে। সংস্থাটির কর্তা শশাঙ্ক শ্রীবাস্তব জানান, প্রায় দেড় লক্ষ ক্রেতা এ ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন। 

হুন্ডাই এনেছে বিশেষ ঋণ প্রকল্প। মার্সিডিজ় বেঞ্জ এনেছে ‘উইশ বক্স ২.০’ প্রকল্প। ইউকো ব্যাঙ্কের এগ্‌জ়িকিউটিভ ডিরেক্টর অজয় ব্যাস মঙ্গলবার বলেন, ‘‘এখনও আমাদের কোনও গাড়ি সংস্থা এমন প্রস্তাব দেয়নি। তা পেলে ব্যাঙ্কিং নিয়ন্ত্রণ বিধি ও ঝুঁকি বিচার করে সিদ্ধান্ত নেব।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন