নগদের সঙ্কটে জর্জরিত বিএসএনএলকে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার পরিকল্পনা করছে কেন্দ্র। সোমবার এ কথা জানান ভারী শিল্প প্রতিমন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল। তাঁর দাবি, কেন্দ্র চায় আরও বেশি করে বিএসএনএলকে তুলে ধরতে। সেটাই প্রথম লক্ষ্য। তাই সংস্থায় পুঁজি জোগানোর কথা ভাবছে তারা। বিএসএনএল কর্তৃপক্ষের জমা দেওয়া প্রকল্প প্রস্তাব অর্থ মন্ত্রক বিবেচনা করে দেখছে বলেও জানান মেঘওয়াল।

যদিও প্রশ্ন উঠছে, গত কয়েক মাস ধরেই পুঁজি জোগানোর কথা চলছে। কিন্তু এখনও সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হয়নি। ফলে কর্মীদের বেতন পেতেও সমস্যা হচ্ছে। উল্লেখ্য, চলতি বছরে তিন বার ঠিক সময়ে বেতন হয়নি বিএসএনএলে। ঠিকা কর্মীদের আট মাসের বেতন বাকি। এই অবস্থার জের কিছুটা হলেও পড়তে শুরু করেছে সংস্থার পরিষেবায়। আর এক রাষ্ট্রায়ত্ত টেলি সংস্থা এমটিএনএলেও বাকি পড়েছে বেতন।

মেঘওয়ালের দাবি, ইতিমধ্যেই বিএসএনএল এবং এমটিএনএলের সমস্যা নিয়ে সংস্থা দু’টির কর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন তাঁরা। ওই দুই সংস্থাকে মেশানোর কথাও সরকার ভাবছিল বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী। তাঁর দাবি, কর্মী সংগঠন এবং অ্যাসোসিয়েশনগুলিই চেয়েছিল তাদের আলাদা রাখতে।