Advertisement
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

রাজ্যে জমি পেতে বার্তা ডিভিসি-র

ডিভিসি কর্তার দাবি, গত তিন বছরের বাজার মূল্য অনুযায়ী প্রতি একরে ১৪ লক্ষ টাকা দাম ঠিক করেছেন তাঁরা। কিন্তু তাতে আপত্তি রয়েছে কিছু জমি মালিকের।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০১৯ ০৫:৫৯
Share: Save:

দরকার ছিল প্রায় ৩৬০০ একর। পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য কয়লা খননের ব্যবস্থা করতে। কিন্তু এখনও তা না-পাওয়ায় মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের জমি নীতি নিয়েই অসন্তোষ প্রকাশ করলেন দামোদর ভ্যালি কর্পোরেশনের (ডিভিসি) এক আধিকারিক। যে নীতির অন্যতম শর্ত সরাসরি মালিকদের থেকে জমি কিনতে হবে সংস্থাকে। তবে ডিভিসি-র এক কর্তার দাবি, বীরভূমে তাদের ওই খাগড়া-জয়দেব কয়লা খনি প্রকল্পের জন্য জমির দাম-সহ নানা বিষয়ে স্থানীয় গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা হচ্ছে। রাজ্য সহযোগিতা করছে। ধাপে ধাপে জমি কিনে প্রকল্পের কাজ শুরুর প্রাথমিক পরিকল্পনাও হয়েছে। রাজ্য সরকারের প্রতি রাষ্ট্রায়ত্ত বিদ্যুৎ সংস্থাটির বার্তা, গোটা প্রক্রিয়ায় প্রশাসন পাশে থাকুক। কারণ, ডিভিসি জমির যে দাম ঠিক করেছে, তাতে আপত্তি জানিয়েছে গ্রামবাসীদের একাংশ।

ডিভিসি কর্তার দাবি, গত তিন বছরের বাজার মূল্য অনুযায়ী প্রতি একরে ১৪ লক্ষ টাকা দাম ঠিক করেছেন তাঁরা। কিন্তু তাতে আপত্তি রয়েছে কিছু জমি মালিকের।

সংশ্লিষ্ট মহলের একাংশের বক্তব্য, কয়লা খননের জন্য দ্রুত জমি পেলে কোল ইন্ডিয়ার থেকে তা কিনতে হবে না। খরচ কমবে। সংস্থার আর্জি, দ্রুত জমি জট ছাড়াতে মধ্যস্থতা করুক রাজ্য। ২০১৫ সালে ডিভিসি খাগড়া-জয়দেব কয়লা ব্লকটি পায়। যেখানে মজুত ১০ কোটি টন কয়লা। খনি প্রকল্পের জন্য সংস্থা পর্ষদ ১০০০ কোটি টাকা অনুমোদন করেছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE