তাঁর দশ দিনের মার্কিন সফর উপলক্ষে ভারতের জাতীয় পতাকা উড়ল নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে। আর, সেই উচ্ছ্বাসের মধ্যেই ভারতে কর ব্যবস্থা স্বচ্ছ করা ও সংস্কার চালিয়ে যাওয়া নিয়ে মার্কিন লগ্নিকারীদের আশ্বাস দিলেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। সেখানেই বিকেলে ঘণ্টা বাজিয়ে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে বুধবারের লেনদেনে সমাপ্তি টানেন তিনি।

বিশ্বের এই বৃহত্তম স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেডিং ফ্লোর ঘুরে দেখে সেখানকার পদস্থ কর্তাদের সঙ্গেও দেখা করেন জেটলি। স্টক এক্সচেঞ্জ থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, ভারতকে ঘিরে দু’ধরনের প্রতিক্রিয়া তাঁর নজরে পড়েছে। প্রথমত, রয়েছে উত্তেজনা ও উচ্ছ্বাস। দ্বিতীয়ত, রয়েছে সংস্কারের গতি, কর ব্যবস্থা ও আর্থিক নীতিতে স্থিতি নিয়ে উদ্বেগ। এই সফরে শিল্পোদ্যোগী ও সম্ভাব্য লগ্নিকারীদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলে তাঁদের ভয় তিনি কাটাতে চান। মার্কিন লগ্নি টানতে তাঁর সফরের পরেই বণিকসভা সিআইআইয়ের প্রতিনিধিদলও আমেরিকা যাচ্ছে বলে সরকাির সূত্রের খবর।

সেনসেক্স বাড়ল ২৮৩। মুম্বইয়ের খবর: মার্কিন শীর্ষ ব্যাঙ্ক ফেড রিজার্ভ তার গত কালের বৈঠকে কম সুদের জমানাই বহাল রাখায় সেনসেক্স বৃহস্পতিবার এক ধাক্কায় বেড়ে গিয়েছে ২৮৩ পয়েন্ট। পাশাপাশি, দেশের বেশ কিছু অংশে ভাল বৃষ্টির প্রভাবও পড়েছে বাজারে। এ নিয়ে পাঁচ দিনের লেনদেনে সেনসেক্স বাড়ল ৭৪৫ পয়েন্ট। সূচক চাঙ্গা হয়ে ওঠায় এবং অর্থমন্ত্রীর মার্কিন সফরের পরিপ্রেক্ষিতে বিদেশি লগ্নিকারী সংস্থাগুলিও এ বার দেশের বাজারে ফিরবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। সেই প্রত্যাশাতেই এ দিন ডলারে টাকাও বেড়েছে ৩৯ পয়সা। প্রতি ডলার দাঁড়িয়েছে ৬৩.৭৩ টাকা। দু’সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি।