কৃষ্ণা-গোদাবরী অববাহিকার ডি৬ ক্ষেত্র (কেজি-ডি৬) থেকে প্রাকৃতিক গ্যাসের উত্তোলন লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় অনেক কম হওয়া সত্ত্বেও রিলায়্যান্স-বিপিকে জরিমানার নোটিস পাঠানো আপাতত বন্ধ রেখেছে কেন্দ্রীয় সরকার। 

কেজি বেসিনের ওই ক্ষেত্র থেকে প্রাকৃতিক গ্যাস তোলার জন্য শুরু থেকেই রিলায়্যান্স ইন্ডাস্ট্রিজ (আরআইএল বা রিল) এবং তার সহযোগী বিপি-কে লক্ষ্য বেঁধে দিয়েছিল কেন্দ্র। কিন্তু অনেক দিনই সেই লক্ষ্য ছোঁয়া সম্ভব হচ্ছে না। সিদ্ধান্ত ছিল, তার জন্য জরিমানা গুনতে হবে ওই দুই সংস্থাকে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট সূত্রের খবর, তথ্যের অধিকার আইনে পাঠানো প্রশ্নের উত্তরে সম্প্রতি কেন্দ্র জানিয়েছে, ২০১৬ সালের পর থেকে বন্ধ রয়েছে ওই নোটিস পাঠানো। বিষয়টি সালিশিতে যাওয়ার পর থেকেই এই পদক্ষেপ।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

এমনিতে এই বিষয়টি নিয়ে জানতে চাওয়া হলেও লিখিত ভাবে উত্তর দেয়নি তেল মন্ত্রক এবং নিয়ন্ত্রক ডিজিএইচ। কিন্তু বিষয়টি সালিশিতে যাওয়ায় জরিমানার নোটিস পাঠানো বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। একই সঙ্গে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন, অনেকটা একই রকম ভাবে কেয়ার্ন এনার্জির সঙ্গে কেন্দ্রের সমস্যা সালিশিতে যাওয়ার পরেও তাদের প্রকল্পের শেয়ার বিক্রি, ডিভিডেন্ড বাজেয়াপ্ত করা, কর ফেরতের অঙ্ক আটকে রাখা ইত্যাদি আটকায়নি। 

কেজি-ডি৬ ক্ষেত্রের ধীরুভাই ১ এবং ৩ কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলনের লক্ষ্যমাত্রা ছিল দিনে ৮ কোটি ঘন মিটার। কিন্তু ২০১১-১২ সালে আসলে উৎপাদন দাঁড়ায় ৩ কোটি ৫৩ লক্ষ ঘন মিটার। পরে তা আরও কমে।