আশঙ্কাই পোক্ত হল আরও। আইএল অ্যান্ড এফএস কেলেঙ্কারির তদন্তে সামনে এল মূল্যায়ন সংস্থার বিভিন্ন অফিসার ও তাদের পরিবারকে আইএল অ্যান্ড এফএসের প্রাক্তন শীর্ষ পদাধিকারিরা কী ভাবে উপহারে তুষ্ট করেছিল, সেই কথা। অন্তর্বর্তীকালীন রিপোর্টে ফরেন্সিক অডিটর গ্র্যান্ট থ্রনটনের আশঙ্কা, এর লক্ষ্য ছিল যোগ্যতা না থাকা সত্ত্বেও গোষ্ঠীর সংস্থাগুলির ঋণপত্রে উঁচু রেটিং আদায়। উপহারের তালিকায় আছে রিয়াল মাদ্রিদের ফুটবল ম্যাচের টিকিট থেকে বাংলো কিনতে ছাড়, নামী ব্র্যান্ডের ঘড়ি, শার্ট।

অভিযোগ, আইএল অ্যান্ড এফএসকে উঁচু রেটিং দিয়েছিল কিছু মূল্যায়ন সংস্থা। পরে প্রকাশ্যে আসে তাদের ঋণ খেলাপের কথা। প্রশ্ন ওঠে রেটিংয়ের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়েই।

খতিয়ে দেখা হয়েছে

  • আইএল অ্যান্ড এফএস গোষ্ঠীর নানা সংস্থার ঋণপত্রে রেটিং দেওয়ার ক্ষেত্রে মূল্যায়ন সংস্থাগুলির ভূমিকা।

  • উঁচু রেটিং দিয়ে কী ভাবে মূলধনী বাজার থেকে মাত্রাতিরিক্ত ধার নিতে সুবিধা করে দেওয়া হয়েছে সংস্থাগুলিকে। যা পরে শোধ করতে পারেনি তারা।

  • ২০০৮-২০১৮ সালের মধ্যে গোষ্ঠীর সংস্থাগুলির রেটিং নিয়ে কোনও দুর্নীতি হয়েছে কি না।

    অডিটে অভিযোগ

  • রেটিং সংস্থার অফিসারদের সুবিধা ও উপহারে ভরিয়ে দেন আইএল অ্যান্ড এফএসের প্রাক্তন কর্তারা।
  • এ ভাবে হয়তো তাঁদের প্রভাবিত করা হয়েছিল ভাল রেটিং পেতেই।

এ দিকে, তাদের উপরে নিষেধাজ্ঞা চাপানোর এক্তিয়ার নিয়ে ফের প্রশ্ন তুলেছে আইএল অ্যান্ড এফএসের প্রাক্তন অডিট সংস্থা ডেলয়েট ও বিএসআর অ্যাসোসিয়েটস।