কগনিজ্যান্টের পর এ বার অভিজ্ঞ কর্মীদের ছাঁটাই করতে চলেছে বহুজাতিক সংস্থা ইনফোসিস। খরচ কমাতে মূলত সিনিয়র ম্যানেজার এবং অ্যাসোসিয়েটস পদের কর্মী সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মঙ্গলবার একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ায়।

ইনফোসিসে কর্মরত সকল কর্মীকে বিভিন্ন স্তরে ভাগ করা হয়। তার মধ্যে সিনিয়র ম্যানেজার বা ওই পদমর্যাদার কর্মীরা পড়েন জেএল-৬ স্তরে। তাঁদেরই প্রায় ২ হাজার ২০০ কর্মীকে ছাঁটাই করা হচ্ছে বলে ওই খবরে প্রকাশিত হয়েছে। আবার জেএল-৩ স্তরের অ্যাসোসিয়েটস এবং জেএল-৪ ও জেএল-৫ মিলিয়ে মধ্য স্তরের কর্মীদের থেকেও অন্তত ১০ হাজার কর্মী ছাঁটাই করা হবে বলে লিখেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। ওই খবরে আরও লেখা হয়েছে, একই সঙ্গে ৯৭১ জন ভাইস প্রেসিডেন্ট, অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট, এগ্‌জিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট পদ থেকেও ৫০ জনকেও ছেঁটে ফেলা হতে পারে।

পারফরম্যান্স বিচার করে এর আগেও ছাঁটাই করেছে ইনফোসিস। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যে খবর প্রকাশিত হয়েছে, তা যদি সত্যি হয়, তা হলে এমন ব্যাপক আকারে ছাঁটাই আগে কখনও চোখে পড়েনি। যদিও ইনফোসিসের একটি সূত্র টাইমস অব ইন্ডিয়াকে জানিয়েছে, পারফরম্যান্সকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেয় তারা। ব্যবসার খাতিরে তাই ছাঁটাই অস্বাভাবিক কিছু নয়। তাই বলে একে গণছাঁটাই হিসাবে না দেখাই উচিত।

আরও পড়ুন: এক মাসে রেকর্ড লাভ রিলায়্যান্সের, বিশ্বের ১৪তম ধনী ব্যক্তি হলেন মুকেশ অম্বানী​

আরও পড়ুন: সরছে দূষণের চাদর, দিল্লিবাসীকে তবু ভয় দেখাচ্ছে নাসার ইনফারেড চিত্র​

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে মার্কিন গবেষণা সংস্থা এইচএফএস-এর সিইও ফিল ফার্স্ট বলেছেন, ‘‘সব ক্ষেত্রেই হাত শক্ত করছে ইনফোসিস। বেশি সংখ্যক কর্মী রাখার বদলে শুধুমাত্র দক্ষ কর্মীদের নিয়ে প্রযুক্তি নির্ভর পরিষেবা দিতে চাইছে তারা।’’