পরিষেবা স্থগিত হয়ে যাওয়া উড়ান সংস্থা জেট এয়ারওয়েজকে ঘুরিয়ে দাঁড় করাতে মুম্বইয়ের ডারউইন গ্রুপ অব কোম্পানিজের সঙ্গে আলোচনায় বসল স্টেট ব্যাঙ্কের নেতৃত্বাধীন ঋণদাতাদের গোষ্ঠী। ডারউইন হোটেল, উড়ান, ওষুধ, পরিকাঠামো-সহ বিভিন্ন ব্যবসায় যুক্ত। 

বুধবার মুম্বইয়ে ডারউইনের সিইও রাহুল গানপুলে সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন, ১৭ এপ্রিলের পরে বসে যাওয়া জেটে ১৪,০০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে তাঁরা আগ্রহী। বাজারে এখন জেটের প্রায় ৮,০০০ কোটি টাকার দেনা রয়েছে বলে সূত্রের খবর। 

ঋণগ্রস্ত জেটের ৫১% অংশীদারি হাতে নিয়েছিল ঋণদাতাদের গোষ্ঠী। প্রথমে স্টেট ব্যাঙ্কের তরফে ১,৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করার কথা বলা হলেও তা হয়নি। এর পরে পরিষেবা স্থগিত হয়ে যায় জেটের। প্রায় ২০,০০০ কর্মীর বেতন এখনও বাকি। 

এই অবস্থায় জেটে বিনিয়োগের জন্য বিভিন্ন সংস্থার কাছে আগ্রহপত্র চাওয়া হয়। দরপত্র জমা দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয় এতিহাদের মতো উড়ান সংস্থাকেও। যারা নিজেরাও জেটের অন্যতম অংশীদার। আগ্রহপত্র জমা দেওয়ার জন্য সময় দেওয়া হয়েছিল ১০ মে পর্যন্ত। সূত্রের খবর, তখনই ডারউইনের তরফে আগ্রহ দেখানো হয়। 

রাহুল এ দিন সাংবাদিকদের জানান, বাজারে জেটের কত দেনা আছে এবং হাতে কত সম্পত্তি রয়েছে প্রাথমিক ভাবে সেটাই তাঁরা বোঝার চেষ্টা করছেন। আরও কী তথ্য পাওয়া যায় তারও খোঁজ চলছে। তবে এতিহাদের মতো আমন্ত্রিত সংস্থা জেটের বিষয়ে যত বেশি তথ্য পাচ্ছে, তাঁরা তত তথ্য পাচ্ছেন না বলেও রাহুল এ দিন অভিযোগ করেছেন। 

যদিও সংস্থার ভবিষ্যৎ কী হবে সে বিষয়ে কর্মীরা এখনও অন্ধকারে। এ দিনই জেটের শেয়ার দর আরও অনেকটা পড়ে গিয়েছে।