অশনি সঙ্কেত গাড়ি শিল্পে। বিক্রি কমছে ফ্ল্যাট-বাড়ির। হতাশ করেছে চলতি অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে শিল্প সংস্থাগুলির আর্থিক ফলাফলও। সব মিলিয়ে ঝিমিয়ে থাকা চাহিদার হাত ধরে অর্থনীতির আকাশ ছেয়েছে আশঙ্কার মেঘে। মঙ্গলবার তারই প্রতিফলন দেখা গেল শেয়ার বাজারে। এক ধাক্কায় সেনসেক্স পড়ল প্রায় ৬২৪ পয়েন্ট। দাঁড়াল ৩৬,৯৫৮.১৬ অঙ্কে। ১৮৩.৮০ হারিয়ে নিফ্‌টি থামে ১০,৯২৫.৮৫ পয়েন্টে। ডলারের সাপেক্ষে অনেকখানি পড়ে টাকার দাম নামে প্রায় ছ’মাসের তলানিতে। ৬২ পয়সা বেড়ে ১ ডলারের দাম হয় ৭১.৪০ টাকা। এ দিন সূচকের পতনে ইন্ধন জুগিয়েছে এশিয়ার প্রায় সব দেশের সূচকের নেমে যাওয়াও।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যদিও সম্প্রতি আশ্বাস দিয়েছেন অর্থনীতির এই সঙ্কটের ছবি বদলাবে দীর্ঘ মেয়াদে। গাড়ি বিক্রি তলানিতে ঠেকার ঘটনাকেও বলেছেন সাময়িক। কিন্তু লগ্নিকারীদের মতে, কোন মন্ত্রে ভোল পাল্টাবে অর্থনীতির, তার উপরে আলো ফেলেননি তিনি। বরং একের পর এক পরিসংখ্যানে চাহিদা কমার ছবি স্পষ্ট হওয়ায় চিন্তা বাড়ছে। সাম্প্রতিক কালে অর্থমন্ত্রী বিভিন্ন ক্ষেত্রের সঙ্গে দেখা করে তাদের সমস্যা শুনেছেন ঠিকই। আশ্বাসও দিচ্ছেন উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার। কিন্তু এখনও তার স্পষ্ট কোনও দিশা দেখা যায়নি। এ দিন প্রায় ৯% পড়েছে গাড়ি সংস্থাগুলির শেয়ার। সেনসেক্সের পতনে লগ্নিকারীরা হারিয়েছেন ২.২১ লক্ষ কোটি টাকার শেয়ার সম্পদ।