কয়লা উত্তোলনে ১০০% বিদেশি লগ্নিতে কেন্দ্র সায় দেওয়ার পরেই বিরোধিতায় মুখর হয়েছিল খনন শিল্প। সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে মঙ্গলবার দেশ জুড়ে এক দিনের ধর্মঘট পালন করলেন রাষ্ট্রায়ত্ত খনন সংস্থা কোল ইন্ডিয়া, তার সব শাখা ও সিঙ্গারেনি কোলিয়ারির (এসসিসিএল) কর্মীরা। ইউনিয়নগুলির দাবি, ধর্মঘটে ব্যাহত হয়েছে উৎপাদন। এক দিনে কোল ইন্ডিয়া, এসসিসিএলের লোকসান হয়েছে ১৪৫ কোটি টাকার। যদিও কোল ইন্ডিয়া এ নিয়ে মুখ খোলেনি।

ইউনিয়নের নেতারা জানান, বিদেশি লগ্নিতে সায়ের প্রতিবাদ ছাড়া ধর্মঘট মারফত তাঁরা কোল ইন্ডিয়ার সব শাখাকে মূল সংস্থায় মেশানোর দাবি তুলেছেন। বিরোধিতা করেছেন ঠিকাদার সংস্থাকে দিয়ে কয়লা তোলারও। এআইইউটিইউসির সাধারণ সম্পাদক শঙ্কর সাহার হুমকি, ‘‘দাবি মানা না হলে এই শিল্পে লাগাতার ধর্মঘটে যাব।’’ ইনটাক অনুমোদিত রাষ্ট্রীয় কোল মজদুর সঙ্ঘের সহ-সভাপতি অনুপ রায় বলেন, 

‘‘আশঙ্কা, কোল ইন্ডিয়ার শাখাগুলির বেসরকারিকরণই কেন্দ্রের লক্ষ্য। এটা রুখতে বড় আন্দোলনে নামব।’’

বাকি ইউনিয়নগুলি এক দিনের ধর্মঘট করলেও, ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘ টানা পাঁচ দিন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কয়লা খনি শিল্পে। যা শুরু হয়েছে গত সোমবার থেকে। তাদের রাজ্য কমিটির সহ সভাপতি শঙ্কর দাসের দাবি, ‘‘২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।’’