জেট এয়ারওয়েজকে ঘুরিয়ে দাঁড় করাতে ঋণদাতারা পরিচালনার রাশ নিয়েছে আগেই। কথা দিয়েছে তহবিল জোগানের। তবু জল্পনা কাটছে না কিছুতেই। মঙ্গলবার দিনভর যা ছড়ালো সাময়িক ভাবে সংস্থার সমস্ত পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাওয়া ঘিরে। সব পক্ষের রক্তচাপ বাড়িয়ে বিভিন্ন সূত্রে এটাও বলা হল, এ দিন রাতেই জানা যাবে উড়ান পুরোপুরি বন্ধ হওয়া নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। সংশ্লিষ্ট মহলের দাবি, বিমানের সংখ্যা খান পাঁচেকে নামায় পরিষেবা চালু রাখা নিয়ে এমনিতেই দানা বেঁধেছে অনিশ্চয়তা। এই পরিস্থিতিতে সঙ্কট আরও গভীর করছে এই সব জল্পনা। জেটের অবশ্য দাবি, পরিষেবা চালু রাখতে স্টেট ব্যাঙ্কের নেতৃত্বাধীন ঋণদাতা গোষ্ঠীর কাছে ৪০০ কোটি টাকার আপৎকালীন তহবিলের আর্জি জানানো হয়েছে। 

কর্মীদের পাঠানো মেল-এ জেট সিইও বিনয় দুবের আশ্বাস, সংস্থাকে ঘুরিয়ে দাঁড় করাতে পুঁজি চাওয়া হয়েছে। জেট নিয়ে আশ্বাস দিয়েছে ঋণদাতা ও সরকারও। 

শুক্রবার খবর ছড়ায়, প্রায় ফুরিয়েছে জ্বালানি ভরার ও পরিষেবা চালানোর টাকা। ফলে ম্যানেজমেন্ট নাকি মঙ্গলবার পর্ষদের বৈঠকে প্রস্তাব দিয়েছে জেটের পরিষেবা আপাতত বন্ধ করার। এর পরেই সংস্থার কাছে এর ব্যাখ্যা চায় বিএসই। জেটের জবাব, এখন ঋণদাতাদের কাছে আপৎকালীন তহবিলের আর্জি জানাচ্ছেন কর্তারা। নিয়ন্ত্রক ডিজিসিএ ও বিমান মন্ত্রকের সঙ্গেও নাগাড়ে চলছে কথাবার্তা। তবে জেট কর্তারা মানছেন, নগদের অভাবে সমস্যা আরও জটিল হওয়ার কথা। যা আরও দানা বেঁধেছে বেতন না মেলায় জেট পাইলটদের সংগঠন ন্যাগ সংস্থার বিরুদ্ধে দেউলিয়া আইন প্রয়োগের হুমকি দেওয়ায়। 

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯   

পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের এমডি সুনীল মেহতা বলেন, পুনরুজ্জীবন পরিকল্পনা আনতে তাঁরা দায়বদ্ধ। সেই কথাই চলছে। তবে কিছু চূড়ান্ত হয়নি। পরে বিমান পরিবহণ সচিব প্রদীপ সিংহ খারোলাকে সমস্যা খতিয়ে দেখতে বলেন বিমানমন্ত্রী। বলেন যাত্রীদের অধিকার ও নিরাপত্তা রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করতে।

দিনভর

• মঙ্গলবার মুম্বইয়ে বৈঠকে বসে জেট পর্ষদ।
• সংবাদ মাধ্যমে খবর ছড়ায় সমস্ত পরিষেবা সাময়িক ভাবে বন্ধের প্রস্তাব দিয়েছে সংস্থার ম্যানেজমেন্ট।
• জল্পনার জেরে বিএসই-তে ১৮.৫৬% পড়ে যায় সংস্থার শেয়ার দর। দাঁড়ায় ২১৩.২০ টাকা। পরে কিছুটা উঠে থামে ২৪১.৮৫ টাকায়। 
• পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক জানায়, ঋণদাতারা জেটের পুনরুজ্জীবন পরিকল্পনা আনতে দায়বদ্ধ। তবে কিছুই চূড়ান্ত হয়নি। আলোচনা চলছে।
• সূত্রের দাবি, শেষ বার তহবিল জোগাড়ের মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে ম্যানেজমেন্ট। পরিষেবা বহাল রাখা হবে কি না, তার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে দিনের শেষে, পুঁজি আসার ছবিটা পরিষ্কার হওয়ার পরে।   
• সংস্থা সূত্র বলছে, পরিষেবা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে খতিয়ে দেখা হবে সব সম্ভাবনাই। ৪০০ কোটির আপৎকালীন তহবিল চাওয়া হয়েছে। 
• সরকারি সূত্রের ইঙ্গিত, শীঘ্রই টাকা ঢালতে পারে ব্যাঙ্কগুলি। পুনরুজ্জীবন নিয়ে কথা চলছে।
• খবর, জেট প্রতিষ্ঠাতা নরেশ গয়াল সংস্থার অংশীদারি কিনতে দর দেবেন না।
• কলকাতায় ঠিকা কর্মীদের ধর্না চলেছে বিমানবন্দরে জেটের অফিসের সামনে। হয়েছে প্রতিবাদে মিছিল। বুধবারও চলবে ধর্না।

সঙ্কট এখন

• ভাড়া না মেটাতে পারায় প্রায় রোজই বসে যাচ্ছে জেটের উড়ান। তা কমে দাঁড়িয়েছে ৪৪টিতে।
• ১১ এপ্রিল কলকাতা থেকে শেষ দু’টি উড়ানও বন্ধ হয়েছে।
• আন্তর্জাতিক উড়ান বন্ধ ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত।
• বিমান পরিবহণ সচিবের দাবি, এখন চালু মাত্র ৫টি বিমান।
• ঋণদাতা ব্যাঙ্কগুলি সংস্থায় ১,৫০০ কোটি টাকা ঢালবে কথা দিলেও, এখনও তার চিহ্ন নেই। 

এ দিন ইটাহারে ফের কর্মসংস্থান নিয়ে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘পরশু বাগডোগরা থেকে ফিরছিলাম। জেটের ছেলেমেয়েরা ধরেছিল। ওরা বলল, আমাদের চাকরি চলে গেলে খাব কী?’’